বন্ধ হয়ে গেল গোঁসাইহাট ইকো পার্ক

বন্ধ হয়ে গেল গোঁসাইহাট ইকো পার্ক

মাত্র দশ বছর বয়সেই পর্যটকদের কাছে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পৌঁছেছিল জলপাইগুড়ির ডুয়ার্সের গোঁসাইহাট ইকোপার্ক।

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি:  মাত্র দশ বছর বয়সেই পর্যটকদের কাছে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পৌঁছেছিল জলপাইগুড়ির ডুয়ার্সের গোঁসাইহাট ইকোপার্ক। ভৌগলিক অবস্থানের সুবাদে পরিযায়ী পাখিদেরও নিশ্চিন্ত আস্তানা হয়ে উঠেছিল এই ইকো পার্ক। কিন্তু কর্মী অভাব এবং দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্যে চলতি মরশুমেই বন্ধ হয়ে গেল গোঁসাইহাট ইকো পার্কটি।

 ২০০৭ সালের ৩০ ডিসেম্বর গোসাইহাট জলাশয় ও ইকো পার্কের উদ্বোধন হয়। উদ্বোধনের পর থেকেই পর্যটকদের ঢল নামে গোঁসাইহাটে। কিন্তু নজরদারির অভাবে পরিযায়ীদের উত্ত্যক্ত করতে থাকে পর্যটক বা আশপাশ এলাকার কিছু মানুষ। অযথা হয়রানি থেকে শুরু করে গুলতি দিয়ে পাখি শিকার কোনওটাই বাদ ছিল না এই ইকো পার্কে। ফলে কমতে থাকে পরিযায়ীদের সংখ্যাও। রেহাই পায়নি জলাশয়ের পাশে থাকা দুটি ওয়াচটাওয়ারও। বাধ্য হয়েই জলাশয়ে পর্যটকদের প্রবেশ ও ইকো পার্ক বন্ধ করে দেয় বনদফতর।

তবে ইকো পার্ক যে পর্যটকদের জন্য আবার খোলা হবে, তা জানান জলপাইগুড়ির ডিএফও বিদ্যুৎ সরকার। ইকো পার্ক বন্ধ করার জন্য বনদফতরকেই দুষছেন এলাকার বাসিন্দা ও বন সুরক্ষা কমিটি। বন দফতর গোসাইহাটের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করছে বলে তাদের অভিযোগ। জলাশয় সংস্কার না হওয়ায় পরিযায়ী পাখির সংখ্যাও অনেক কমেছে বলে মনে পরিবেশপ্রেমীদের।

মুখ্যমন্ত্রী পর্যটন শিল্পে আরও উন্নতি চাইছেন, সেখানে গোঁসাইহাট বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণ খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলেও জানান রাজ্যের বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মন।

ওয়াচ টাওয়ার সারাই ও গোঁসাইহাটকে পুরনো অবস্থায় ফিরে পাওয়া জন্য এখন অপেক্ষা করছেন এলাকার মানুষ।

First published: 07:06:46 PM Feb 17, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर