নিরাপত্তায় জোর, শিলিগুড়ির ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে বসছে সিসি ক্যামেরা

নিরাপত্তায় জোর, শিলিগুড়ির ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে বসছে সিসি ক্যামেরা

শিলিগুড়ি জলপাইগুড়ি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আর্থিক সহযোগিতায় বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি শহরের নিরাপত্তায় জোর। শিলিগুড়ির বিভিন্ন ওয়ার্ডে বসতে চলেছে সিসি ক্যামেরা। ইতিমধ্যেই তৃণমূলের দখলে থাকা ১৩ এবং ২০ নম্বর ওয়ার্ডে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। এই দুই ওয়ার্ডে ৩২টি করে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

শিলিগুড়ি জলপাইগুড়ি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আর্থিক সহযোগিতায় বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। মূলত, শহরবাসীর নিরাপত্তার স্বার্থেই সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে তৃণমূলের দখলে থাকা শহরের ৯, ১১ এবং ১২ নং ওয়ার্ডে ৩০টি করে ক্যামেরা বসানো হবে।

এভাবেই ধাপে ধাপে শিলিগুড়িজুড়ে সিসি ক্যামেরা বসানো হবে বলে জানিয়েছেন পুরসভার বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার। সিসি ক্যামেরা বসানো নিয়েও শাসক-বিরোধীদের মধ্যে তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে। মেয়র অশোক ভট্টাচার্য কটাক্ষ করে বলেছেন, ‘২০ নং ওয়ার্ডের সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে তৃণমূলের কার্যালয় থেকে। যা নিয়ন্ত্রণ করার কথা পুলিশের। স্বাভাবিকভাবেই এর উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন থাকছে’। যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা তৃণমূল কাউন্সিলর রঞ্জন সরকার। তাঁর পালটা জবাব ,‘ পুলিশই এর নিয়ন্ত্রণ করছে’। পরবর্তী পর্যায়ে পুরসভার বাকি সব ওয়ার্ড সিসি ক্যামেরায় মুড়তে ১০ কোটি টাকা খরচ হবে বলে প্রশাসনিক সূত্রে জানা গিয়েছে।

বিরোধী দলনেতা জানান, ‘এতে শহরে অপরাধের সংখ্যা কমবে। শহরবাসীর নিরাপত্তা আরও জোরদার হবে। প্রতিটি ওয়ার্ডেই ৩০টি করে ক্যামেরা বসানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।’ শহরজুড়েই চুরি, ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। সিসি টিভি বসানো হলে অপরাধের প্রবণতা অনেকটাই কমবে বলে আশাবাদী শিলিগুড়ির বাসিন্দারা।

এর আগে শিলিগুড়ি শহরে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে সিসি ক্য়ামেরা বসিয়েছে পুলিশ। এবারে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ক্যামেরা বসানোয় পুলিশি নজরদারিতে সুবিধে হবে বলে মনে করছে প্রশাসন ।  রাস্তায় হওয়া অপরাধের তদন্তে গতিও আসবে। তদন্তে সবরকমভাবে সহযোগিতা করবে সিসি ক্য়ামেরার নজরদারি৷

PARTHAPRATIM  SARKAR

First published: January 24, 2020, 8:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर