উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কে চালাল গুলি? ছররা গুলিতে মৃত বিজেপি কর্মীর দেহ দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের দাবি

কে চালাল গুলি? ছররা গুলিতে মৃত বিজেপি কর্মীর দেহ দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের দাবি

দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের দাবি তুলেছে বিজেপি । ময়নাতদন্তের সময় তিন জন চিকিৎসক ও একজন ভিডিওগ্রাফারের উপস্থিতিও দাবি করা হয়েছে ।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: প্রথমবারের ময়নাতদন্তের রিপোর্টে স্পষ্টই বলা হয়েছে ছররা গুলিতেই মৃত্যু হয়েছে বিজেপি কর্মী উলেন রায়ের । কিন্তু বিতর্ক থামেনি এতেও । কে বা কারা গুলি করল, তা নিয়ে এই মুহূর্তে উত্তপ্ত উত্তরবঙ্গ । এরইমধ্যে মৃত বিজেপি কর্মীর দেহ দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্ত করার দাবি জানাল বিজেপি নেতৃত্ব । এ দিন, মঙ্গলবার জলপাইগুড়ির বিজেপি সাংসদ আরও একবার উলেন বাবুর দেহের ময়নাতদন্ত করার আর্জি জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সুপার ও শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারকে । ময়নাতদন্তের সময় তিন জন চিকিৎসক ও একজন ভিডিওগ্রাফারের উপস্থিতিও দাবি করেছেন তিনি ।

তবে বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য, ময়নাতদন্তের যে প্রাথমিক কারণ রাজ্য পুলিশ জানিয়েছে, তা নিয়ে তাঁদের কোনও আপত্তি নেই । তাঁরাও এই বিষয়ে প্রশাসনের সঙ্গে একমত । কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, এই ছররা গুলি চালাল কে? পুলিশ নাকি মিছিলের ভিড়ে মিশে থাকা কোনও দুষ্কৃতী? বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুর বক্তব্য, তর্কের খাতিরে যদি মেনেও নেওয়া যায় মিছিলের মধ্যে থেকেই কেউ ছররা গুলি চালিয়েছে । তাহলে কেউ না কেউ তাকে দেখতে পেত এবং তখনই গণপিটুনি শুরু হয়ে যেত । ফলে এটা কোনওভাবেই বিশ্বাসযোগ্য হতে পারে না ।

গতকাল অর্থাৎ সোমবার বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান মিছিল হয় শিলিগুড়িতে । ওই মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসু, জয়ন্ত রায়রা। মাঝ রাস্তায় পুলিশ মিছিল আটকাতেই তা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় । লাঠি, কাঁদানে গ্যাস, জল কামান, ছররা গুলি চালাতে বাধ্য হয় পুলিশ । এই সংঘর্ষের মধ্যেই মৃত্যু হয় উলেনবাবুর । গতকালই তাঁর ময়নাতদন্তের রিপোর্ট সামনে আসে । সেখানেই উল্লেখ করা হয়, রবার বুলেটেই মৃত্যু হয়েছে ওই কর্মীর ।

বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে আজ ১২ ঘণ্টার উত্তরবঙ্গ ধর্মঘট ডেকেছে বিজেপি । সকাল থেকেই প্রায় স্তব্ধ শিলিগুড়ি । বাজারহাট তেমন খোলেনি, রাস্তায় যানবাহনও উল্লেখযোগ্য হারে কম । এ দিন শিলিগুড়ির এয়ারভিউ মোড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পোস্টার ছিড়ে দেয় বিজেপি কর্মীরা । তৃণমূলের কর্মীদের সঙ্গে কয়েক দফা মারমিটও হয় বিজেপি সমর্থকদের । শহরের মোড়ে মোড়ে রয়েছে পুলিশি পাহারাও ।

তবে উলেন বাবুর মৃতদেহ এখনও সৎকার করা হয়নি। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজের মর্গে রয়েছে সেই দেহ । এরইমধ্যে উলেন বাবুর মৃতদেহ ফের ময়নাতদন্তের দাবি উঠে আসছে । তবে এই মুহূর্তে পুরো ব্যাপারটাই রয়েছে পরিবারের হাতে । তাঁরা যদি দ্বিতীয়বার দেহের ময়নাতদন্ত করতে রাজি না হন, তাহলে উলেনবাবুর দেহ পরিবারের হাতেই তুলে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে ।

Published by: Simli Raha
First published: December 8, 2020, 2:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर