West Bengal Assembly Election 2021: প্রার্থী বদলের দাবিতে ভাঙচুর, বিক্ষোভ! ফলস্বরূপ দলের নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধেই কড়া পদক্ষেপ বিজেপির

West Bengal Assembly Election 2021: প্রার্থী বদলের দাবিতে ভাঙচুর, বিক্ষোভ! ফলস্বরূপ দলের নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধেই কড়া পদক্ষেপ বিজেপির

দলের নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধেই কড়া পদক্ষেপ বিজেপির

প্রার্থী পছন্দ না হওয়ায় মালদহের গাজোল পার্টি অফিস এবং মালদহ জেলা কার্যালয়ে ভাঙচুরের ঘটনায় শাস্তিমুলক পদক্ষেপ করল বিজেপি।

  • Share this:

#মালদহ: মালদহের বিজেপি নেত্রী সাসপেন্ড। জেলা পরিষদ সদস্য সাগরিকা সরকারকে দল থেকে সাসপেন্ড করল বিজেপি। বিজেপির ৬ নম্বর মণ্ডল কমিটির আহ্বায়ক পদেও ছিলেন সাগরিকা সরকার। প্রার্থী পছন্দ না হওয়ায় মালদহের গাজোল পার্টি অফিস এবং মালদহ জেলা কার্যালয়ে ভাঙচুরের ঘটনায় শাস্তিমুলক পদক্ষেপ করল বিজেপি।

ভাঙচুরে নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগ সাগরিকা দেবীর বিরুদ্ধে। এছাড়াও মালদহের বিভিন্ন বিধানসভার আরও অন্তত ১৫ জন বিজেপি নেতাকে শোকজ করা হল। দলীয় অফিসে হাঙ্গামার অভিযোগ ওই নেতাদের বিরুদ্ধেও। কেন তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করা হবে না জানতে চাইল দল। রাজ্যের নির্দেশেই এই কড়া পদক্ষেপ বলে জানালেন জেলা বিজেপি সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল।

উলেখ্য, প্রার্থী ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই মালদহে একাধিক বিধানসভায় বিজেপির অভ্যন্তরে বিক্ষোভ দেখা যায়। বেশ কিছু এলাকায় পার্টি অফিসে ভাঙচুর হয়। বিক্ষোভের রেষ এসে পৌঁছয় মালদহ জেলা কার্যালয়েও। চেয়ার-টেবিল, আসবাবপত্র ভাঙচুর হয়। দলীয় সূত্রে খবর, শোকজের তালিকায় রয়েছেন বিজেপির ১০ নম্বর মন্ডল কমিটির সভাপতি রুপেশ আগরওয়াল, বিজেপি জেলা সম্পাদক কিষান কেডিয়ার মতো পদস্থ নেতৃত্ব।

মালদহ জেলা পরিষদের ম্যাজিক ফিগার নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে টানাপড়েন চলছে। দু পক্ষেরই দাবি, মালদা জেলা পরিষদ এখন তাঁদের দখলে। এই পরিস্থিতিতে জেলা পরিষদের দলীয় প্রতীকে নির্বাচিত সদস্যকে সাসপেন্ড নিঃসন্দেহে কড়া পদক্ষেপ। গত ১৮ মার্চ বিজেপির প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পরেই মালদহে একের পর এক বিধানসভায় দলের নিচুতলার নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়।

পুরাতন মালদহ থেকে হরিশ্চন্দ্রপুর, গাজোল, মানিকচক, ইংরেজবাজার শহর প্রভৃতি এলাকায় পার্টি অফিসে ভাঙচুর, বিক্ষোভ চলে। একাধিক বিধানসভার বিক্ষুব্ধরা মালদা শহরে এসে জেলা কার্যালয়ে কার্যত তাণ্ডব চালায়। এরপরেই কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার বার্তা দেয় রাজ্য নেতৃত্ব। বিজেপি জেলা সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডল বলেন, ভিডিও ফুটেজ দেখে বিজেপির পার্টি অফিসে ভাঙচুরে যাঁরা জড়িত তাঁদেরকে আলাদা করে চিহ্নিত করা হয়েছে। বিজেপি দলে প্রার্থী নিয়ে এভাবে ক্ষোভ-বিক্ষোভের রেওয়াজ নেই। যাঁরা এসব করেছেন তাঁরা সঠিক কাজ করেননি। তাই দলীয় শৃঙ্খলা মেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হয়েছে।

সেবক দেবশর্মা

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: