• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন বিজেপি সাংসদ জয়ন্ত রায়, হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ১

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন বিজেপি সাংসদ জয়ন্ত রায়, হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ১

এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিত জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানা ঘেরাও করে বিজেপি।

এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিত জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানা ঘেরাও করে বিজেপি।

এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিত জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানা ঘেরাও করে বিজেপি।

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি: উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে ছুটি পেলেন জলপাইগুড়ির বিজেপি বিধায়ক জয়ন্ত রায়। শনিবার চিকিৎসকেরা দেখার পর তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়। তবে এখনও দূর্বলতা রয়েছে। তাই আগামী কয়েকদিন বিশ্রামে থাকতে হবে সাংসদকে, পরামর্শ চিকিৎসকের। সাংসদ নিজেও জানান, শুক্রবার থেকে অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। কিছুদিন বাড়িতেই বিশ্রাম নেবেন।

ঘরছাড়া দলীয় কর্মীদের বাড়ি ফেরাতে গিয়ে আক্রান্ত হন সাংসদ। রাজগঞ্জের ভাণ্ডারীগছে সাংসদ সহ ২ বিজেপি কর্মীর ওপর অতর্কিতে হামলা চালানো হয়। রাতেই ভর্তি করা হয় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে। পরে আশঙ্কাজনক এক দলীয় কর্মী সহ ২ জনকে শিলিগুড়ির সেবক রোডের একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে বিজেপির স্থানীয় নেতারা। তবে সাংসদ মেডিক্যালেই ভর্তি ছিলেন।

বিজেপির অভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরাই পুলিশের উপস্থিতিতে হামলা চালায়। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মতো ঘরছাড়াদের বাড়ি ফেরানোর উদ্যোগ নেন বিজেপি সাংসদ। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তে নেমে ১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাকিদেরও সন্ধানে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। সাংসদ জয়ন্ত রায় জানান, তিন মূল অভিযুক্ত এখনও ফেরার। অবিলম্বে তাদের গ্রেফতার করতে হবে। না হলে এলাকায় ফের সন্ত্রাস চালাবে তৃণমূল। জীবন চলে গেলেও ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরানো হবেই। কোনোভাবেই আটকানো যাবে না। সাফ হুঁশিয়ারি সাংসদের।

এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিত জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানা ঘেরাও করে বিজেপি। শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে দেখা করেন চার বিজেপি বিধায়ক। দার্জিলিং ও ডাবগ্রামের ৬ বিধায়কের যাওয়ার কথা থাকলেও ২ বিধায়ক গরহাজির ছিলেন। দার্জিলিংয়ের নীরজ জিম্বা এবং ফাঁসিদেওয়ার দূর্গা মূর্মূ আসেননি ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ত থাকায়। পুলিশ কমিশনারের কাছে নালিশ জানিয়ে শিলিগুড়ির বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ বলেন, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরও পুলিশের ভূমিকা নিন্দনীয়। ঘরছাড়াদের বাড়ি ফেরাতে প্রয়োজনে আইনের পথেও হাঁটবেন। অন্যদিকে এদিন বিজেপি সাংসদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন একাধীক কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তিনি রাষ্ট্রপতি, রাজ্যপাল, প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন।

Published by:Pooja Basu
First published: