তৃণমূলের সভাস্থল ঝাড়ু দিয়ে, গঙ্গা জল ছিটিয়ে 'শুদ্ধ' করল বিজেপি! 'নাটক' বলে পাল্টা কটাক্ষ তৃণমূলের

তৃণমূলের সভাস্থল ঝাড়ু দিয়ে, গঙ্গা জল ছিটিয়ে 'শুদ্ধ' করল বিজেপি!

মালদহের হরিশচন্দ্রপুরের টাউন লাইব্রেরি মাঠে সোমবার জনসভা করে তৃণমূল কংগ্রেস। সভায় হাজির ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী গোলাম রাব্বানি এবং জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

  • Share this:

#মালদহ: মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরে তৃণমূলের জনসভার পর সভাস্থল শুদ্ধিকরণের কাজে নামলেন বিজেপির কর্মীরা। ঝাঁটা হাতে সাফাই, এরপর গঙ্গাজল ছড়িয়ে "শুদ্ধ" করা হলো বিজেপির কার্যালয় চত্বর এবং লাগোয়া সভাস্থল। আর এ নিয়ে শুরু হয়েছে বিজেপি-তৃণমূল চাপানউতর। মালদহের হরিশচন্দ্রপুরের টাউন লাইব্রেরি মাঠে সোমবার জনসভা করে তৃণমূল কংগ্রেস। সভায় হাজির ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী গোলাম রাব্বানি এবং জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

ওই এলাকার স্থানীয় বিজেপি কার্যালয়ের পাশেই ছিল সভাস্থল। সেই সভায় প্রচুর মানুষ ভিড় করেন। কিন্তু সভার পর রাত পোহালেও মাঠ অপরিষ্কার হয়ে পড়েছিল বলে অভিযোগ। এর পরেই সাফাই ও শুদ্ধিকরণ অভিযানে নেমে পড়েন বিজেপি কর্মীরা। হরিশচন্দ্রপুরের বিজেপির মণ্ডল সভাপতি রুপেশ আগরওয়ালের অভিযোগ, "নির্বাচনী সভার পর তৃণমূল কংগ্রেস সভাস্থল নোঙরা করে রেখে চলে যায়। তাই সেই জায়গা পরিস্কার করে গঙ্গাজল ছিটিয়ে পবিত্র করা হয়েছে।"

তৃণমূল কংগ্রেসকে কাটমানি দল বলে কটাক্ষ করে তাঁর দাবি, তৃণমূলের লোকজন জমায়েতের পর সভাস্থল অপবিত্র হয়েছে। কারণ তৃণমূলের সঙ্গে এখন আর কোনও ভালো লোক নেই। সভাস্থলের পাশেই রয়েছে বিজেপির দলীয় কার্যালয়। তাই, ঝাঁটা দিয়ে সাফাই করে গঙ্গাজল ছড়িয়ে পবিত্র করা হয়েছে।

মালদহ জেলা তৃণমূল সভাপতি মৌসম বেনজির নূর একে "নাটক" বলে মন্তব্য করেছেন। মৌসমের পাল্টা অভিযোগ, "বিজেপির এখন কোনও কাজ নেই। তাই ওঁরা এসব নাটক করছেন। সাধারণ মানুষের মধ্যে এর কোনো প্রভাব পড়বে না। বরং বিজেপির সমস্ত অপচেষ্টাকে প্রতিহত করে মালদহে বিধানসভায় তৃণমূল চমকপ্রদ ফল করবে"।

এতদিন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিজেপির সভার পর তৃণমূলের তরফে গঙ্গাজল ছেটানো, শুদ্ধিকরণের প্রয়াস লক্ষ্য করা গিয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায়। কিন্তু রাজ্যের মন্ত্রী গোলাম রব্বানির জনসভার পর এবার হরিশ্চন্দ্রপুরে এর উল্টো পথে হেঁটে শুদ্ধিকরণের রাস্তায় গেরুয়া শিবিরের কর্মী সমর্থকরাও। আর এ নিয়েই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতর।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: