মিরিকে পুনরায় ভোট গণনা হোক ! দাবি গুরুংয়ের

গুরুঙ্গদের চিন্তায় ফেলল তৃণমূল

গুরুঙ্গদের চিন্তায় ফেলল তৃণমূল

  • Share this:

    #দার্জিলিং: পাহাড়ের রাজনীতিতে যে বেশ কিছু পরিবর্তন হতে চলেছে, তার একটা আভাস আগেই পাওয়া গিয়েছিল ৷ বুধবার পুরভোটের ফলাফলে যা ভালমতোই প্রকট হয়েছে ৷ প্রায় সাড়ে তিন দশক পর সমতলের কোনও দল পাহাড়ে নিজেদের খাতা খুলতে সফল হয়েছে ৷ এদিন দার্জিলিং, কালিম্পং এবং কার্শিয়ং পুরসভা গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা নিজেদের দখলে রাখতে সফল হলেও মিরিকে ফুটেছে ঘাসফুল ৷ যা স্বভাবতই মোর্চা প্রধান বিমল গুরুংয়ের কপালে ভাঁজ ফেলেছে ৷

    ভোটের ফলাফল নিয়ে অবশ্য খুব একটা চিন্তিত নন মোর্চা নেতা  বিমল গুরুং ৷  ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর ইটিভি-কে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘‘ এই জয় সত্যের জয়, পাহাড়ের মানুষের জয় ৷ দার্জিলিং, কালিম্পং, কার্শিয়ং সব জায়গাতেই আমরা ভাল মার্জিনে জিততে পেরেছি ৷ কিন্তু মিরিকেই গণ্ডগোল হয়ে গেল ৷ আমার প্রশ্ন, ওখানে সকাল ৮টা-র একটু পরেই কীভাবে ভোটের ফলাফল ঘোষণা হয়ে গেল ? আটটা থেকে যেখানে সব জায়গায় গণনা শুরু হওয়ার কথা ৷ সেখানে মিরিকে এত তাড়াতাড়ি ফলাফল কীভাবে ঘোষণা হল ? আমি  মিরিক পুরসভার নির্বাচনে পুনরায় ভোটগণনার জন্য আবেদন করব ৷ ’’

    দার্জিলিং, কালিম্পং, মিরিক এবং কার্শিয়াং। পাহাড়ের এই চার পুরসভাই বছরের পর বছর নিজেদের দখলে রেখে এসেছে মোর্চা ৷ কিন্তু এবারই মিরিক পুরসভা তাদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিতে সফল তৃণমূল ৷ ওই পুরসভার ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে তৃণমূল পেয়েছে ৬টি। আর মোর্চা পেয়েছে মাত্র তিনটি। আগের বার সব ক’টি ওয়ার্ডই মোর্চার হাতে ছিল। কার্শিয়াং, দার্জিলিং এবং কালিম্পং— এই তিন পুরসভাতেও খাতা খুলেছে তৃণমূল। কার্শিয়াং-এ ৩, দার্জিলিং-এ ১ এবং কালিম্পং-এ ২টি করে ওয়ার্ড নিজেদের ঝুলিতে পুরে ফেলেছে তারা। যদিও দার্জিলিং, কালিম্পং, কার্শিয়ং-এ নিজেদের একচ্ছত্র দাপট এবারও দেখাতে সফল মোর্চা ৷ দার্জিলিং-এ মোট ওয়ার্ড ৩২ ৷ তার মধ্যে ৩১টি ওয়ার্ডেই জয়ী মোর্চা ৷ অন্যদিকে কালিম্পং পুরসভাতে মোট ২৩টি ওয়ার্ডের মধ্যে মোর্চার দখলে গিয়েছে ১৯ টি ৷ ২টি করে ওয়ার্ড পেয়েছে তৃণমূল ও JAP ৷ কার্শিয়ং পুরসভাও নিজেদের দখলেই রাখল মোর্চা ৷ ২০ টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৭ টা ওয়ার্ডে জিতেছে বিমল গুরংয়ের দল ৷

    First published: