উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কাল শৈলশহরে ফিরছেন গুরুং! সাড়ে তিন বছর পর প্রকাশ্য সভা

কাল শৈলশহরে ফিরছেন গুরুং! সাড়ে তিন বছর পর প্রকাশ্য সভা
পাহাড়ে ফিরছেন বিমল গুরুং।

কালই শৈলশহরে জনসভায় যোগ দেবেন গুরুং।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: দীর্ঘ সাড়ে তিন বছর পর কাল রবিবার পাহাড়ে ফিরছেন বিমল গুরুং, রোশন গিরিরা। অপেক্ষার প্রহর গুনছেন তাঁদের অনুগামীরা। শহরকে সাজিয়ে তুলেছেন গুরুংয়ের ছবি সহ দলীয় পতাকায়। কালই শৈলশহরে জনসভায় যোগ দেবেন গুরুং।

২০১৭ সালে পাহাড়ে গোলমালের সময়ে গা ঢাকা দেন গুরুংরা। পুজোর আগে কলকাতায় আত্মপ্রকাশ করেন সপার্ষদ গুরুং। ফিরেই ঘোষণা করেন বিজেপির সঙ্গে আর নয়। একুশের লড়াইয়ে তৃণমূলের সঙ্গেই জোট বেঁধে ভোটের ময়দানে লড়বেন। এবং উত্তরবঙ্গে বিজেপিকে বিধানসভা নির্বাচনে বড় ধাক্কা দেওয়াই যে তাঁর লক্ষ্য তা শিলিগুড়ি এবং ডুয়ার্সের সভাতেই স্পষ্ট করেছেন। কাল পাহাড়ে ফিরে কী বার্তা দেন গুরুং, সেদিকেই চেয়ে পাহাড় থেকে সমতল। পাহাড়ে এখন তাঁর লড়াই বিনয়পন্থীদের সঙ্গেও। প্রশ্ন, পাহাড় কার দখলে থাকবে? বিনয় না বিমলের? লড়াই চলছে।

ইতিমধ্যেই গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার দুই শিবিরকে নিয়ে আলাদা আলাদাভাবে বৈঠকে বসেছেন তৃণমূল নেতারা। কিন্তু সুর এখনও গলেনি। গুরুংয়ের সভার একদিন আগে আজ কার্শিয়ংয়ে প্রাক্তন সেনাদের সংগঠনের এক সভায় যোগ দিয়ে গুরুংকে যে সহজে ছাড়া হবে না তা স্পষ্টভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন অনীত থাপা। তিনি এদিন সাফ বলেন, একুশের নির্বাচনে পাহাড়ের তিন আসনেই প্রার্থী দেবেন তারা। সমর্থন জানাবে তৃণমূল। তৃণমূলের সঙ্গে জোট আছে এবং তা থাকবে। তবে গুরুংরা প্রার্থী দেবে কিনা তা ওদের বিষয়। অনীত এদিন আরও বলেন, "বিমল গুরুং, রোশন গিরিদের সঙ্গে এক মঞ্চে কখোনই দেখা যাবে না তাদের। ওরা ওদের মতো চলবে। আমাদের স্লোগান, "নতুন ভাবনা। নতুন বিকাশ।" ২০১৭ সাল থেকেই পাহাড়ে এই স্লোগানকে সামনে রেখে আমরা লড়ছি। তা জারি থাকবে, মন্তব্য অনীতের।"

অর্থাৎ গুরুং পাহাড়ে ওঠার আগে কিছুটা চাপ বাড়িয়ে রাখলেন অনীতরা। কাল পালটা গুরুং কি বলেন, সেদিকে নজর থাকবে রাজনৈতিক মহলের। তবে তৃণমূল চাইছে, দুই শিবির তিক্ততা ভুলে লড়লে সুবিধে তাদের। নইলে বিজেপি সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে দেবে। ইতিমধ্যেই তা শুরু করে দিয়েছেন দার্জিলিংয়ের বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা। দিল্লিতে জি এন এল এফ, সি পি আর এম নেতাদের নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। সবমিলিয়ে সরগরম পাহাড়ের রাজনীতি। ডিসেম্বরের শীতেও রাজনৈতিক উত্তাপ বাড়ছে শৈলশহরে।

Published by: Arka Deb
First published: December 19, 2020, 7:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर