গ্রেফতার হতে পারেন বিমল গুরং !

 সম্ভাবনা ছিল আগেই। গ্রেফতার হতে পারেন বিমল গুরং। উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে সেটাই স্পষ্ট হল।

সম্ভাবনা ছিল আগেই। গ্রেফতার হতে পারেন বিমল গুরং। উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে সেটাই স্পষ্ট হল।

সম্ভাবনা ছিল আগেই। গ্রেফতার হতে পারেন বিমল গুরং। উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে সেটাই স্পষ্ট হল।

  • Share this:

    #দার্জিলিং: সম্ভাবনা ছিল আগেই। গ্রেফতার হতে পারেন বিমল গুরং। উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে সেটাই স্পষ্ট হল। কড়া হাতে পাহাড়ে আইনের শাসন বজায় রাখার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর। এই সূত্রেই বাড়ছে মোর্চা প্রধানের গ্রেফতারির সম্ভাবনা। জিটিএ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর পদক্ষেপেও চাপে মোর্চা। ২ অগস্টের মধ্যে জিটিএ-র শপথ গ্রহণ হবে। আর্থিক গরমিল নিয়েও ব্যবস্থার ইঙ্গিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

    আরও চাপে বিমল গুরং। যে কোনও মুহুর্তে গ্রেফতার হতে পারেন মোর্চা প্রধান। উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকের পর কড়া হাতে পাহাড়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

    শুক্রবার রাতে সরানো হয়েছিল দার্জিলিংয়ের পুলিশ সুপারকে শনিবার সরানো হল কার্শিয়াং ও কালিম্পংয়ের আইসিকেও বৃহস্পতিবারের মোর্চার তাণ্ডব ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় এই রদবদল

    একদিকে পাহাড়ের উন্নয়ন - অন্যদিকে মৌরসীপাট্টা ভাঙতেও একাধিক ব্যবস্থার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর।

    শনিবার থেকে জিটিএ-র অডিটের কাজ শুরু হয়েছে। আরও ৬ জন অডিটরকে এজন্য পাহাড়ে পাঠানো হচ্ছে। এর আগে একাধিকবার জিটিএ-র টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ উঠেছে। আর্থিক তছরুপের অভিযোগ এফআইআরের নির্দেশ রাজ্য প্রশাসনের।

    সবমিলিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কৌশলে প্রশাসনিক ভাবেও প্রবল চাপে পড়তে চলেছে মোর্চা নেতৃত্ব। আর্থিক দুর্নীতির পাশাপাশি পুরনো মামলাও ঝুলছে মোর্চা নেতাদের বিরুদ্ধে।

    মোর্চার জঙ্গিপনা রুখতে কড়া হলেও পাহাড়বাসীর ওপর তার প্রভাব পড়তে দিতে চাননা মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান হিসাবেই পাহাড়ে শান্তি ফেরানোর বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।

    First published: