Bengal News : রাখিতে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা! মোবাইলে গেম খেলায় মত্ত চার যুবককে পিষে দিল ট্রেন...

রাখিতে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা

Bengal News : রাখি বন্ধন উৎসবের কারনে বোনের কাছে রাখি পরতে চারজনই বাড়িতে এসেছিল। রাতে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।

  • Share this:

#চোপড়া : মর্মান্তিক দুর্ঘটনার সাক্ষী থাকল উত্তর দিনাজপুর(Uttar Dinajpur News) জেলার চোপড়া ব্লকের হাপতিয়াগছ গ্রাম পঞ্চায়েতের কনাগছ গ্রাম। ট্রেনে কাটা পরে একই সঙ্গে চার যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জানা গিয়েছে, উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের কনাগছ গ্রামের চার যুবক রাহুল সিংহ,সৌরভ সিংহ, প্রশান্ত সিংহ এবং রাহুল সিংহ প্রত্যেকেই চোপড়া এলাকা মোটর গ্যারেজের কর্মী। রবিবার রাখি বন্ধন উৎসবের কারনে বোনের কাছে রাখি পরতে চারজনই বাড়িতে এসেছিল। রাতে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি(Bengal News ) ঘটবে কেউ স্বপ্নেও ভাবেনি।

সন্ধ্যার পর এলাকার চার বন্ধু বাড়ির কাছে রেল লাইনের ধারে গিয়েছিল। কেউ বলছে মোবাইলে পাবজি খেলতে ব্যস্ত ছিল তাঁরা আবার কেউ বলছে মোবাইলে গান শুনছিল। এই মোবাইলই তাঁদের জীবনকে শেষ করে দেবে এটা ভাবেনি রাহুল, প্রশান্ত, সৌরভরা। আচমকা পর পর দুটি ট্রাকে দুটি আপ, ডাউন ট্রেন। আপ ট্রেনকে কোনভাবে রক্ষা পেলেও এন জে পি র দিক থেকে আসা আগরতলা দেওঘর ডাউন ট্রেনে পিষে নিয়ে গেল চার যুবককে।

তিন মাইলের কাছে ট্রেনের চালক বিষয়টি বুঝতে পারে। ট্রেনটি দাঁড় করিয়ে ট্রেনের চালক রেল দপ্তরের আধিকারিকদের বিষয়টি জানায়। ইতিমধ্যে গ্রামের মধ্যে এই খবর ছড়িয়ে পড়েছে। মৃতের আত্মীয়রা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে সন্তানের ছিন্নভিন্ন দেহ দেখতে পান। দেহ শনাক্ত করার পর মৃতের আত্মীয়রা দেহ নিজ নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়।একই পরিবারে দুই যুবকের মৃত্যু,  প্রতিবেশী আরও দুইজন।

একইসঙ্গে চারজনের মৃত্যতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। রেলের ৩১ নম্বর গেটম্যান শশী কুমার জানান,আগরতলা দেওঘর ডাউন  ৩০ নম্বর গেট পেরিয়ে আসতে ট্রেনের নীচ থেকে আগুন দেখতে পান। ট্রেনটিকে তিন মাইলের কাছে দাঁড় করানো হয়। চালক জানায় ৩০ নম্বর গেটের কাছে কোন দুর্ঘটনা ঘটেছে। এখবর ছড়িয়ে পড়তেই অসংখ্য মানুষ সেখানে ভিড় করে। রেল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর আগেই মৃতের পরিবারের লোকেরা ছিন্নভিন্ন দেহ বস্তায় তুলে বাড়িতে নিয়ে যায়।মৃতের দাদা আনন্দ সিংহ জানান, রাখি পরতে বাড়িতে এসেছিল তার ভাই। সন্ধ্যার নাগাদ বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে ঘুরতে বেরিয়ে ছিল। তারপরই এই দুর্ঘটনা।

জানা গিয়েছে, মোবাইল ফোন নিয়ে খেলা করতেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। হাপতিয়াগছ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান আদিনা টুডু জানান, ট্রেনের ধাক্কায় চারজন যুবকের মৃত্যুর খবর পেয়েছেন। বিস্তারিত জানতে তিনি এলাকায় যাবেন। ইসলামপুর পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার শচীন মক্কার জানান, রাতে হাপতিয়াগছ গ্রামে চার যুবকের মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি রেল পুলিশের অধীনে থাকায় ঘটনাটি তারাই দেখছে।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: