হোম /খবর /উত্তরবঙ্গ /
রাতে বাড়ি ফিরছিল ২ তৃণমূল কর্মী, তখনই...ক্ষোভে ফুঁসছে দিনহাটা, নিশানায় বিজেপি

Tmc Vs Bjp: রাতে বাড়ি ফিরছিল ২ তৃণমূল কর্মী, তখনই...ক্ষোভে ফুঁসছে দিনহাটা, নিশানায় বিজেপি

তৃণমূল বনাম বিজেপি

তৃণমূল বনাম বিজেপি

Tmc Vs Bjp: গুরুতর আহত অবস্থায় ওই দুই তৃণমূল কর্মীকে প্রথমে দিনহাটা হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হলে এমজেএন মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হলেও সেখান থেকেও তাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়।

  • Share this:

#দিনহাটা: তৃণমূল কংগ্রেসের সভা থেকে রাতে বাড়ি ফেরার পথে বিজেপির আক্রমণে গুরুতর আহত দুই তৃণমূল কর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় দিনহাটা ২ ব্লকের নিগমনগর ঘাটপার এলাকায়। তৃণমূল কংগ্রেসের সভা ছিল ওই এলাকায়। সেই সভায় উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী উদয়ন গুহ। সেই সভাতে গিয়েছিলেন এলাকার নুর ইসলাম মিয়া ও ময়নাল শেখ নামে দুই তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী। কিন্তু অভিযোগ, বাড়ি ফেরার পথে বিজেপি কর্মীরা তাদের উপর চড়াও হয়। বোমাবাজি করে বলে অভিযোগ৷

গুরুতর আহত অবস্থায় ওই দুই তৃণমূল কর্মীকে প্রথমে দিনহাটা হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হলে এমজেএন মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হলেও সেখান থেকেও তাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়। উল্লেখ্য রাতে ওই এলাকায় আমবাড়িতে বিজেপির ২৩ নম্বর মণ্ডলের সভাপতি বিদ্যুৎ কমল সরকারের বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা দল বেঁধে এসে বাড়ি ভাঙচুর করে। যদিও একে অপরের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি।

আরও পড়ুন: 'একবার ঠকেছি, আর নয়', অভিষেকের উদ্দেশ্যে দিলীপের বার্তা, 'অনেক দেরি হয়ে গেছে'!

এদিকে, বিজেপির কর্মীসভায় হামলার অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। শনিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের রানীনগরের কে এম পাড়া এলাকায়। ঘটনায় গুরুতরভাবে জখম হয়েছেন এক বিজেপি কর্মী। নাম দিল রহমান। ঘটনার পর উদ্ধার করে তাঁকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয় ডোমকল মহকুমা হাসপাতালে। জানা গিয়েছে ,রানীনগরের কে এম পাড়া এলাকাতে বিকেলে বিজেপির এক কর্মীসভা চলছিল। সন্ধ্যার দিকে হঠাৎ তৃণমূল আশ্রিত কিছু দলবল লাঠিসোটা নিয়ে জড়ো হয়। সভায় থাকা গাড়ি ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। মারধর করা হয় বিজেপি কর্মীদের। তারপরেই আহত একজনকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায় গোধনপাড়া গ্রামীন হাসপাতালে সেখান থেকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয় ডোমকল মহকুমা হাসপাতালে। এই সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির মাইনোরিটি মোর্চার সভাপতি রফীক আলি মণ্ডল, কিষান মোর্চার সভাপতি নিমাই মজুমদার সহ বিজেপি নেতৃত্বরা। আগামী ৭ ডিসেম্বর বিজেপির সভা থাকায় আজ কর্মীসভা ছিল।

আরও পড়ুন: কেন নিজের ঘরে ডেকেছিলেন মমতা, 'সেটিং'য়ের বিস্ফোরক অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর

অপরদিকে, ডায়মন্ড হারবারে শুভেন্দু অধিকারীর সভাতে যাওয়ার সময় তৃণমূলের দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত অন্তত ২৬ জন সুন্দরবন বিজেপির সাংগঠনিক জেলার নেতৃত্ববৃন্দ। এদের মধ্যে এক বিজেপি কর্মীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আনা হয়েছে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে। আহত বিজেপি কর্মীর নাম রবিন সরদার। বাড়ি কুলতলির কৈখালীতে। প্রথমে তাকে জয়নগরের পদ্মেরহাট গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতাল আনা হয়েছে।

আর গতকাল হটুগঞ্জের এই ঘটনায় সারারাত ভর পুলিশি ধরপাকড়ে এখনও পর্যন্ত মোট ২৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়। ধৃতদের আজ ডায়মন্ডহারবার এসিজেএম আদালতে পেশ করা হবে।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Bengal BJP, TMC