corona virus btn
corona virus btn
Loading

জাতীয সড়কের পাশে পুলিশের নাকের ডগায় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এটিএম লুঠ, কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি

জাতীয সড়কের পাশে পুলিশের নাকের ডগায় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এটিএম লুঠ, কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি
  • Share this:
# মালদহ:- কালিয়াচকের সুজাপুরে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এটিএম গ্যাস কাটার দিয়ে কেটে টাকা উধাও। ঘটনাস্থলে তদন্তে পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ পদস্থ পুলিশ কর্তারা। দুদিন লকডাউন থাকার কারণে বুধবারে টাকা ভরা হয়েছিল এই এটিএম- এ। আর বৃহস্পতিবার সকালে  এটিএম লুটের  ঘটনা  প্রকাশ্যে আসে। এর আগেও এই রাষ্ট্রয়ত্ত  ব্যাঙ্কে দিন-দুপুরে ডাকাতির ঘটনা হয়েছিল। এর আগে একবার এটিএমও ভাঙা হয়। তবে সেই সময় এটিএম ভাঙা হলেও টাকা নিয়ে যেতে পারেনি দুষ্কৃতীরা। গতকাল রাতে এলাকায় পুলিশি টহলদারি ছিল। তাছাড়া ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশেই  রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের এই শাখা  এবং এটিএম। এরপরেও যেভাবে দুষ্কৃতীরা গ্যাস কাটার নিয়ে এসে, এটিএম কেটে লুট করেছে তাতে চিন্তায় পুলিশ কর্তারাই। ব্যাংকে থাকা সিসিটিভি ফুটেজে কিছু তথ্য মিলেছে। এখন সেসব খতিয়ে দেখছেন পুলিশ কর্তারা। তবে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান রাতেই এটিএম এ টাকা ভরার বিষয়টি সম্পর্কে আগে থেকেই তথ্য ছিল দুষ্কৃতীদের  কাছে। মোটা টাকা লুটের পরিকল্পনা নিয়েই দুষ্কৃতীরা হানা দেয়। তবে ঠিক কত টাকা এটিএম-এ ভরা হয়েছিল বা কত টাকা লুট হয়েছে তদন্তের স্বার্থে সে সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে চাননি পুলিশ ও ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এটিএম লুটের খবর পেয়ে এদিন এলাকায় যান রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের উচ্চপদস্থ কর্তারাও। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ব্যাংকের এটিএম দেখভাল করে বেসরকারি সংস্থা। ব্যাঙ্কের এটিএম-এ কোন প্রহরী ছিল না । তবে ঘটনার তদন্তে পুলিশকে সব রকম সাহায্য করছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।এর আগে মালদহে একাধিক এটিএম ভাঙার চেষ্টা করেছে দুষ্কৃতীরা। কিন্তু এটিএম ভাঙা হলেও টাকা লুটের এমন ঘটনা ঘটেনি । ফলে এদিনের ঘটনার পর চিন্তায় পুলিশকর্তারা। নতুন করে যাতে কোনও এটিএম লুটের ঘটনা না ঘটে এজন্য পুলিশি নজরদারি বাড়ানো হচ্ছে। মালদহের পুলিশ সুপার অলোক রাজরিয়া জানিয়েছেন, সিসিটিভি থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গিয়েছে। দ্রুত ওই  দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের উদ্যোগ নেওয়া হবে। Sebak Deb Sharma
Published by: Elina Datta
First published: August 21, 2020, 1:16 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर