পাহাড়ের পর্যটনে বড়সড় ধাক্কা! মঙ্গলবার থেকে অনির্দিষ্টকালের ট্যাক্সি ধর্মঘট বাগডোগরা বিমানবন্দরে

পাহাড়ের পর্যটনে বড়সড় ধাক্কা! মঙ্গলবার থেকে অনির্দিষ্টকালের ট্যাক্সি ধর্মঘট বাগডোগরা বিমানবন্দরে
মঙ্গলবার থেকে ৮ দফা দাবীতে অনির্দিষ্টকালের ট্যাক্সি ধর্মঘটের ডাক দিল বাগডোগরা ট্যাক্সি ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন।

মঙ্গলবার থেকে ৮ দফা দাবীতে অনির্দিষ্টকালের ট্যাক্সি ধর্মঘটের ডাক দিল বাগডোগরা ট্যাক্সি ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: পর্যটন শিল্পে ফের ধাক্কা! মঙ্গলবার থেকে ৮ দফা দাবীতে অনির্দিষ্টকালের ট্যাক্সি ধর্মঘটের ডাক দিল বাগডোগরা ট্যাক্সি ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন। তাদের অভিযোগ, বার বার বৈঠক, আলোচনার পরও রাজ্য সরকার তাদের দাবী পূরণ করেনি। তাই বাধ্য হয়ে ধর্মঘটের পথে হাঁটতে হল। সংগঠনের দাবি, এই ইস্যুতে বেশ কয়েকবার জেলা প্রশাসন তো বটেই পর্যটনমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে হয়েছে। কিন্তু প্রতিশ্রুতি ছাড়া কিছুই মেলেনি। উলটে পরিবার নিয়ে বিপাকে গাড়ি চালক এবং মালিকেরা।

আজ এ প্রসঙ্গে পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, "ওঁদের প্রতি সহানুভূতি রয়েছে। দাবী কিছু পূরণ করাও হয়েছে। প্রয়োজনে আবার বসব আলোচনায়।" শনিবার শিলিগুড়ি জার্নালিস্ট ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ট্যাক্সি সংগঠনের সভাপতি সিরাজ ভৌমিক বলেন, "লকডাউনে আমরা গাড়ি চালাইনি। তাও আমাদের ওই ছ'মাসের ট্যাক্স দিতে হচ্ছে। আমরা বলেছিলাম এই ট্যাক্স আমরা দেব না। কিন্তু সরকার আমাদের কথা শুনছে না। এছাড়াও আরও বেশ কিছু দাবী আমরা করেছিলাম পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের কাছে। তিনি আমাদের আশ্বাস দিয়েছিলেন ১৫ দিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান করবেন। কিন্তু তা বাস্তবায়িত  হয়নি। এমনকি বিধানসভাতেও তোলেননি মন্ত্রী। গতকালই বিধানিসভার অধিবেশন শেষ হয়েছে। তাই আমরা ধর্মঘটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। এ ছাড়া অন্য কোনও পথ খোলা নেই।"

তিনি আরও বলেন, "আমাদের দাবী না মানা হলে আমরা আমাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভুখ হরতালে বসব।" এ বিষয়ে পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, "আমি ওঁদের সঙ্গে আগেও কথা বলেছি। দাবী পূরণ করার সবরকম চেষ্টা করছি।আমি আবার আলোচনায় বসব। আশা করি ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে ওঁরা।"


অন্যদিকে বাগডোগরা ট্যাক্সি ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের কর্তারা পর্যটক-সহ বিমান যাত্রীদের সমস্যার কথা স্বীকার করে নিয়ে জানিয়েছে, বিকল্প পথ খোলা নেই। পুরো বিষয়টি রাজ্যের ওপর। অন্য পরিবহন ক্ষেত্রে ছাড় মিলেছে। তাহলে এক্ষেত্রে নয় কেন? সংগঠনের দাবী, বিভিন্ন পর্যটন সংস্থা তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছে।

Partha Sarkar

Published by:Shubhagata Dey
First published: