'ভোট শেষ হতে হতে মমতাও জয় শ্রীরাম বলবেন', কোচবিহারে দাবি অমিতের

মমতাকে আক্রমণ শাহের৷

এ দিন কোচবিহারের জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷

  • Share this:

    #কোচবিহার: ভিক্টোরিয়া কাণ্ডের পরও জয় শ্রীরাম নিয়ে পিছু হঠতে নারাজ বিজেপি৷ বরং এই স্লোগানেই ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিঁধে রাজনৈতিক ফায়দা ঘরে তোলার চেষ্টা করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ একই সঙ্গে স্পষ্ট করে দিলেন মেরুকরণের রাজনীতি করেই বাংলায় ক্ষমতা দখলের পথে হাঁটছেন তাঁরা৷

    এ দিন কোচবিহারে পরিবর্তন যাত্রার উদ্বোধন করে অমিত শাহ বলেন, ' বাংলায় জয় শ্রীরাম বলা যাবে না তো কি পাকিস্তানে গিয়ে জয় শ্রীরাম বলতে হবে? দেশ, বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ জয় শ্রীরাম বলে গর্বিত বোধ করেন৷ কিন্তু আমাদের মমতা দিদির তো বিশেষ একটি সম্প্রদায়কে তোষণ করতে হবে৷ তাই জয় শ্রীরাম শুনলেই তাঁর সমস্যা হচ্ছে৷ তাহলে কি অন্য সম্প্রদায়ের মানুষ ভোটার নন? তবে আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি, ভোট শেষ হয়ে যাওয়ার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও জয় শ্রীরাম বলবেন৷'

    এ দিন কোচবিহারে বিজেপি-র পরিবর্তন রথের সূচনা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷ প্রসঙ্গত গত ২৩ জানুয়ারি কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মদিন উদযাপনের সরকারি অনুষ্ঠানে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেওয়ার ঘটনায় বিতর্ক ছড়ায়৷ ঘটনার প্রতিবাদে সেদিন বক্তব্যও রাখেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ওই ঘটনায় বিজেপি কিছুটা অস্বস্তিতে পড়লেও জয় শ্রীরাম নিয়ে পিছু না হঠে এই ইস্যুতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কোণঠাসা করার চেষ্টা শুরু করেছেন অমিত শাহ সহ বিজেপি নেতারা৷ এ দিন বরং অমিত শাহ দাবি করেন, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মদিন পালনের ওই অনুষ্ঠানেও মমতাই রাজনীতি করেছেন৷ তাঁর অভিযোদ, 'মমতা দিদি তো সারাক্ষণ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করছেন৷ এতে কি বাংলার ভাল হবে?'

    অমিত শাহের এ দিনের আক্রমণের জবাবে রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেন, 'জয় শ্রীরাম বলা নিয়ে আপত্তি নেই৷ কিন্তু যেভাবে জয় শ্রীরামের মতো ধর্মীয় একটি স্লোগানের রাজনৈতিক ব্যবহার হচ্ছে, সেটা নিয়ে আমাদের আপত্তি রয়েছে৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: