প্রচারে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীরা, অভিযোগ জমা পড়ল পুলিশের কাছে

প্রচারে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীরা, অভিযোগ জমা পড়ল পুলিশের কাছে

রাতে প্রচারে গিয়ে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীর গাড়ি। বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

রাতে প্রচারে গিয়ে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীর গাড়ি। বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

  • Share this:

# ইটাহার: রাতে প্রচারে গিয়ে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীর গাড়ি। বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে থানায় বিক্ষোভ বিজেপি কর্মীদের।পুলিশি আশ্বাসে বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে বিজেপি কর্মীরা। তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি বিজেপি তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে। দলের কোনও কর্মী এই ঘটনায় যুক্ত নয় বলে দাবি করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী।

উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অমিত কুণ্ডুর সমর্থনে বিজেপি কর্মীরা সুরুন গ্রামে প্রচারে যান।সেই সময় তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাদের উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ।ভাঙচুর করা হয় তাদের একটি গাড়ি। গাড়িতে থাকা তিনজন বিজেপি কর্মীকে ব্যপক মারধর করে বলে অভিযোগ। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে  রাতেই থানায় এসে বিক্ষোভ শুরু করে বিজেপি কর্মীরা। পুলিশের আশ্বাসে বিক্ষোভ তুলে নেয়। আহত বিজেপি কর্মী নৃপেন দাস জানান, ‘‘গুলন্দর এলাকায় প্রচারে যাবার সময় রাস্তায় ১০০/১৫০ জন তৃণমূল কংগ্রেসের দুষ্কৃতী গাড়ি দিয়ে রাস্তা আটকে দেয়। তাদের গাড়ি দাঁড়িয়ে যাবার সঙ্গে সঙ্গেই বাঁশ দিয়ে গাড়িতে হামলা চালায়। তাদের উপরও হামলা চালাচ্ছিলেন।।মাথা নীচু করে থাকায় তারা কোনক্রমে বেঁচে গেছেন।’’ বিজেপি প্রার্থী অমিত কুণ্ডু জানান, ‘‘গুলন্দর এলাকায়  তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিনিয়ত বিজেপি কর্মীদের উপর অত্যাচার চালাচ্ছেন। আগেই বিজেপি ফ্ল্যাগ, ফেষ্টুন ছিঁড়ে পুড়িয়ে দিয়েছে তৃনমূল কংগ্রেসের দুষ্কৃতীরা। পুলিশের কাছে অভিযোগ করা সত্ত্বেও পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এবারে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন। পুলিশ তাদের আশ্বস্ত করেছে।অভিযুক্তদের গ্রেফতার করবেন।’’

এই আশ্বাস পাওয়ার পরেই তারা অবরোধ তুলে নিলেন৷ ইটাহার কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মুশারফ হোসেন  বিজেপির বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন বিজেপি তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে। ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্রে সংগঠন নেই, দলের কোন কর্মী নেই। বিধানসভা নির্বাচন হেরে যাবার ভয়ে সহানুভূতি দিয়ে ভোট পেতে চাইছে। নির্বাচন কমিশন ইটাহার এলাকায় সিসিটিভি ক্যামেরা বসিয়েছে। সেখানেও তার কোন ছবি পাওয়া যায়নি। বিজেপি কর্মীদের হামলার ঘটনায় তার দলের কেউ  যুক্ত নন।আসলে বিজেপি শান্ত এলাকাকে অশান্ত করা চেষ্টা করছেন। বিধানসভা নির্বাচনে ইটাহারের মানুষ এই চক্রান্তের বিরুদ্ধে মতামত জানিয়ে দেবেন।

Uttam Paul

Published by:Debalina Datta
First published: