Home /News /north-bengal /

Alipurduar Hospitals: হাসপাতালগুলিতে প্রত্যাখ্যাত হয়ে দুর্ঘটনায় আহত ছেলেকে নিয়ে থানায় অসহায় বাবা

Alipurduar Hospitals: হাসপাতালগুলিতে প্রত্যাখ্যাত হয়ে দুর্ঘটনায় আহত ছেলেকে নিয়ে থানায় অসহায় বাবা

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Alipurduar Hospitals:অভিযোগ, শহরের বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে ভর্তির জন্য গিয়ে প্রত্যাখ্যাত হলেন দুর্ঘটনায় আহত ২২ বছর বয়সি রোগী। অবশেষে রোগী নিয়ে সটান আলিপুরদুয়ার থানাতে হাজির হন রোগীর বাবা।

  • Share this:

    আলিপুরদুয়ার : আলিপুরদুয়ার জেলা সদর শহরের বেসরকারি হাসপাতালগুলির (private hospitals of Alipurduar) নির্মমতা প্রকাশ্যে এল। অভিযোগ, শহরের বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে ভর্তির জন্য গিয়ে প্রত্যাখ্যাত হলেন দুর্ঘটনায় আহত ২২ বছর বয়সি রোগী। অবশেষে রোগী নিয়ে সটান আলিপুরদুয়ার থানাতে হাজির হন রোগীর বাবা। পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে ফের জেলা সদর হাসপাতালেই ঠাঁই হয় ওই রোগীর।

    আলিপুরদুয়ার শহর লাগোয়া বীরপাড়ার বাসিন্দা ২২ বছর যুবক নয়ন রাভা শনিবার ভোর রাতে কালচিনি ব্লকের নিমতি বাজারের কাছে দুর্ঘটনায় আহত হন। বর্ষশেষের অনুষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার সময় দুর্ঘটনাগ্রস্ত হন ওই যুবক। তাঁর মাথায় ও মুখে গুরুতর আঘাত লাগে। প্রথমে কালচিনি ব্লকের লতাবাড়ি হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে জেলাসদরে রেফার করলে সকাল ১০ টা নাগাদ জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় জখম নয়নকে। অভিযোগ, সারাদিন হাসপাতালে থাকলেও কোনও চিকিৎসক রোগীকে দেখেননি।

    আরও পড়ুন : তুষারপাত অব্যাহত, সান্দাকফু-সিকিমে আটকে থাকা পর্যটকদের ফিরিয়ে আনল প্রশাসন

    আরও পড়ুন :  শিলিগুড়িতে জটিল হচ্ছে বাম-কংগ্রেসের আসন রফা, ১২ আসনে মুখোমুখি লড়াই

    নয়নের আত্মীয়দের দাবি, বন্ড সই করে বিকেল তিনটে নাগাদ তাঁকে জেলাসদর হাসপাতাল থেকে ছাড়িয়ে বাইরের বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু শহরের সব ক’টা বেসরকারি হাসপাতাল ঘুরেও রোগীকে ভর্তি করতে পারেননি পরিবার। অবশেষে আলিপুরদুয়ার থানায় নয়নকে নিয়ে হাজির হন তাঁর বাবা অম্বিকা রাভা। পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে ফের জেলাসদর হাসাপাতালে ঠাঁই হয় জখম যুবকের। ঘটনা খোঁজ নিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সুমিত গাঙ্গুলি।

    (প্রতিবেদন-রাজকুমার কর্মকার)

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Alipurduar

    পরবর্তী খবর