বামেদের বনধে আংশিক প্রভাব, টোটো ভাঙচুর, রাস্তায় অবরোধ, বিক্ষিপ্ত অশান্তি মালদহে

বামেদের বনধে আংশিক প্রভাব, টোটো ভাঙচুর, রাস্তায় অবরোধ, বিক্ষিপ্ত অশান্তি মালদহে
বেলা বাড়তেই বিভিন্ন এলাকায় পথে নামেন বাম কর্মী সমর্থকরা। দৈনিক বাজার এবং যান চলাচলে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তাঁদের বিরুদ্ধে।

বেলা বাড়তেই বিভিন্ন এলাকায় পথে নামেন বাম কর্মী সমর্থকরা। দৈনিক বাজার এবং যান চলাচলে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তাঁদের বিরুদ্ধে।

  • Share this:

#মালদহ: শুক্রবার বামেদের ডাকা ১২ ঘণ্টার বাংলা বনধে আংশিক প্রভাব দেখা গেল উত্তরের জেলা মালদহে। বামেদের ডাকা বন্ধ সফল করতে এদিন রাস্তায় নামে কংগ্রেসও। শহরের বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ ছিল। রাস্তায় নামেনি বেসরকারি বাস। তবে সরকারি বাস পরিষেবা ছিল স্বাভাবিক। টোটো, অটো, রিকশ, সহ বিভিন্ন ছোট গাড়ি রাস্তায় নামে। বনধ উপেক্ষা করে বিভিন্ন প্রয়োজনে রাস্তায় বের হন অনেক সাধারণ মানুষ। নির্দিষ্ট সময় মেনে লকডাউনের পর এদিনই প্রথম বিভিন্ন স্কুলের পঠন-পাঠন শুরু হয়।

সরকারি দপ্তর গুলিতে হাজিরাও ছিল প্রায় স্বাভাবিক। এদিন সকালের দিকে জেলার কোথাও সেভাবে বনধ সমর্থক বা পিকেটিং চোখে পড়েনি। কিন্তু বেলা বাড়তেই বিভিন্ন এলাকায় পথে নামেন বাম কর্মী সমর্থকরা। দৈনিক বাজার এবং যান চলাচলে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তাঁদের বিরুদ্ধে। বিভিন্ন এলাকায় বনধ সফল করতে দলীয় পতাকা হাতে রাস্তায় নামে কংগ্রেস।মালদহের মানিকচকের যাত্রীবাহী টোটোতে হামলা ও ভাঙচুর চালায় বনধ সর্মথকরা। আতঙ্কিত হয়ে টোটো থেকে নেমে পালন যাত্রীরা। পুরাতন মালদহ মঙ্গলবাড়ী চৌরঙ্গী মোড় এলাকায় বাম ও কংগ্রেস সমর্থকরা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে দফায় দফায় অবরোধ করে। যাত্রীবাহী সরকারি বাস আটকে দেওয়া হয়। নেতৃত্বে ছিলেন মালদহের কংগ্রেস বিধায়ক ভূপেন্দ্রনাথ হালদার। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মালদহ শহরের রবীন্দ্র এভিনিউ এলাকাতেও উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার বাস আটকে বিক্ষোভ দেখান বনধ সমর্থকরা।

শহরের পোস্ট অফিস মোড় এলাকায় চলন্ত টোটোতে লাঠিপেটা করতে দেখা যায় ধর্মঘটীদের। বন্ধের সমর্থনে মালদা শহর জুড়ে মিছিল করেন বাম কর্মী সমর্থকরা।তবে এদিন বনধে পুলিশকে অনেকটাই নিষ্ক্রিয় দেখিয়েছে। বনধ সর্মথকরা শহরের রাস্তায় দাপট দেখালেও পাল্টা কোনরকম বলপ্রয়োগের রাস্তায় যায়নি পুলিশ।


সিপিএম জেলা সম্পাদক অম্বর মিত্র বলেন, এদিনের বনধে সাধারন মানুষ স্বর্তফূর্ত সাড়া দিয়েছেন। বনধ সফল হয়েছে। তবে আচমকা বনধ ডাকতে হওয়ায় কিছু মানুষ সমস্যায় পড়েছেন। কিন্তু বনধের ইস্যুতে সমর্থন জানিয়েছেন সাধারন মানুষ।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published:

লেটেস্ট খবর