corona virus btn
corona virus btn
Loading

বনধ উঠতেই ছন্দে পাহাড়, ভিড় জমাচ্ছে পর্যটকেরা

বনধ উঠতেই ছন্দে পাহাড়, ভিড় জমাচ্ছে পর্যটকেরা
নিজস্ব চিত্র

বনধ উঠতেই ছন্দে পাহাড়, ভিড় জমাচ্ছে পর্যটকেরা

  • Share this:

 #দার্জিলিং: বনধ উঠতেই নতুন করে আশায় বুক বেঁধেছে পাহাড়। থিকথিকে না হলেও পুজোর ছুটিতে ভিড় জমেছে দার্জিলিঙে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের হাঁকাহাঁকিতে জমজমাট বাজার। তবে টয়ট্রেন চলতে আরও দু'-তিন দিন লাগবে বলে জানিয়েছে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

বনধের আতঙ্ক। মিটিং-মিছিল-স্লোগানের আওয়াজ। হারিয়ে গিয়েছিল পাহাড়ের মনোরম পরিবেশ। বনধ ওঠার খবরে স্বস্তি ফিরেছিল শৈলরানির মনে। তাহলে কি পুজোয় আবার আসবেন পর্যটকরা? নিরাশ হয়নি দার্জিলিং । ম্যালে তিলধারণের জায়গা নেই এটা বলা না গেলেও দেখা মিলছে ভ্রমণপ্রিয় বাঙালির।

বনধ আতঙ্কে অনেক পর্যটকই হোটেলের বুকিং বা ট্রেন-বাসের টিকিট বাতিল করেছিলেন। তবে যাঁরা অপেক্ষায় ছিলেন, গুটি গুটি পায়ে পাহাড়মুখী হয়েছেন তাঁরাই। জমজমাট হোটেলের বাইরে গাড়ি-ঘোড়ার শব্দে আবার সরগরম রাস্তা। আস্তাবল থেকে কাজে নেমে পড়েছে ঘোড়ারাও। দোকানিরাও রকমারি পসরা সাজিয়ে তৈরি। প্রিয়জনের কাছে আবদার রেখে পছন্দের জিনিস ঝুলিতে ভরছেন পর্যটকরা। মনপসন্দ খানাপিনা হাজির করতে রেস্তোরাঁগুলিও হাজির। যদিও কর্মীর অভাবে সমস্ত রেস্তোরাঁ এখনও খোলেনি।

বনধ উঠলেও পুজো বা গান্ধি জয়ন্তীর ছুটি থাকায় এটিএম পরিষেবাও পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। টয়ট্রেন পরিষেবাও দু'-তিন দিনেই স্বাভাবিক হবে বলে জানিয়েছে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। শৈলরানির হাতছানি আর পর্যটকদের উদ্যমের কাছে সমস্ত প্রতিবন্ধতাই হার মানবে। নিশ্চিত পাহাড়।

First published: October 3, 2017, 10:44 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर