• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • প্রশাসক পদে নবনিযুক্ত তৃণমূল নেতা, মিছিল করে এসে দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন তিনি

প্রশাসক পদে নবনিযুক্ত তৃণমূল নেতা, মিছিল করে এসে দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন তিনি

রাজনৈতিক দলের নেতাকে প্রশাসক পদে বসানোর তীব্র বিরোধিতা করেছে বিজেপি।

রাজনৈতিক দলের নেতাকে প্রশাসক পদে বসানোর তীব্র বিরোধিতা করেছে বিজেপি।

রাজনৈতিক দলের নেতাকে প্রশাসক পদে বসানোর তীব্র বিরোধিতা করেছে বিজেপি।

  • Share this:

#কালিয়াগঞ্জ: জাকজমক ভাবে কালিয়াগঞ্জ পৌরসভায় প্রশাসকের পদে দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন শচীন সিংহরায়। প্রশাসক কার্তিক পাল বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় সেই পদ থেকে কার্তিকবাবুকে সরিয়ে দেওয়া হয়। শূন্যপদে কালিয়াগঞ্জ পুরসভার নতুন প্রশাসক শচীন সিংহরায়কে দায়িত্বভার দেওয়া হল। মিছিল করে নতুন প্রশাসককে কালিয়াগঞ্জ পৌরসভায় নিয়ে আসেন তৃণমূল কংগ্রেসের  কর্মী সমর্থকরা। রাজনৈতিক দলের নেতাকে প্রশাসক পদে বসানোর তীব্র বিরোধিতা করেছে বিজেপি।

মেদিনীপুরে বিজেপি নেতা অমিত শাহের সভায় যোগ দিয়েছিলেন কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার প্রশাসক কার্তিক পাল। কার্তিক পাল তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় প্রশাসক পদ থেকে সরিয়ে দেবার কথা ঘোষণা করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল। জেলা সভাপতির এই ঘোষণার পর সোমবার রাজ্য পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রাক্তন কাউন্সিলার শচীন সিংহরায়ের নাম জানানো হয়। এর পাশাপাশি কালিয়াগঞ্জ পুরসভার প্রশাসক মন্ডলির নতুন সদস্য করা হয় তৃণমূল কংগ্রেসের কালিয়াগঞ্জ শহর কমিটির সভাপতি কমল ঘোষকে।

১৯৯৯-২০০৯ পর্যন্ত দুবার কংগ্রেসের টিকিটে কাউন্সিলারের দায়িত্ব পালন করা কমল ঘোষ কালিয়াগঞ্জ পুর প্রশাসন পরিচালনায় যুক্ত থাকার সুবাদে এবারে তাঁকে প্রশাসক মন্ডলীতে নিয়ে আসা হল। কমল ঘোষের অন্তর্ভুক্তির সঙ্গে কালিয়াগঞ্জ পুরসভার প্রশাসক মন্ডলী থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে সীমা দাসকে।  ৪ ডিসেম্বর পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের তরফে সীমা দাস সহ নতুন তিন সদস্যকে যুক্ত করা হয়েছিল কালিয়াগঞ্জ পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীতে। রাজনৈতিক দলের নেতাদের প্রশাসক নিয়োগ করার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন বিজেপি নেতা ভবানী চরন সিংহ।

ভবানীবাবুর অভিযোগ, কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার মেয়াদ উত্তীর্ন হবার পর নিরপেক্ষ একজনকে প্রশাসক নিয়োগ করার দাবিতে আন্দোলন করছেন। এবারেও সেই পথে হাটছে রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ করেছেন।  আগামীতে আবারও তারা আন্দোলনে নামবেন। কালিয়াগঞ্জের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক তপন দেবসিংহ জানান, যিনি চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি প্রশাসক হয়েছেন। ফলে এধরনের মিছিল করার প্রয়োজন হয়নি। কার্তিক পাল বিজেপিতে যোগ দেবার পর সেই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। সেই পদে বসানো হয় শচীন সিংহরায়কে। শচীনবাবু দায়িত্ব পাবার পর উজ্জীবিত দলীয় কর্মীরা। সেই উৎসাহ থেকেই এই মিছিল বলে বিধায়ক তপনবাবু জানিয়েছেন।

Published by:Pooja Basu
First published: