corona virus btn
corona virus btn
Loading

জাল নোটের পর এবার মালদহ সীমান্তে সক্রিয় মোবাইল ফোন পাচার চক্র, উদ্বিগ্ন পুলিশ

জাল নোটের পর এবার মালদহ সীমান্তে সক্রিয় মোবাইল ফোন পাচার চক্র, উদ্বিগ্ন পুলিশ

গত ২৬ জুলাই গোলাপগঞ্জেই ৯৬টি চোরাই মোবাইল উদ্ধার করে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া অধিকাংশ মোবাইল ছিল উত্তর ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের। এরপর গত ১৬ অগাস্ট বৈষ্ণবনগর ১৫ টি চোরাই মোবাইল উদ্ধার হয়।

  • Share this:

#মালদহ:- মালদহের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে এবার সক্রিয় চোরাই মোবাইল পাচার চক্র। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের চোরাই মোবাইল মালদা সীমান্ত হয়ে চলে যাচ্ছে বাংলাদেশ। মোবাইল পাচার চক্র  গ্রেপ্তার করে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য পেল মালদহ পুলিশ। মালদহের গোলাপগঞ্জ  উদ্ধার ৩০ টি নামিদামি কোম্পানির মোবাইল ফোন। ঘটনায় গ্রেফতার দুই পাচারকারি।

মালদহের গোলাপগঞ্জ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ   দুই মোবাইল পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে লালন শেখ-২৮, দুইশতবিঘি এলাকার বাসিন্দা। সাবির মিঁয়া-২৬-র বাড়ি চরিঅনন্তপুর এলাকায়। মোবাইল পাচার চক্র সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে এদের দুজনকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘোরাফেরা করার সময় বাহান্নকুড়ি এলাকা থেকে দুই জনকে  গ্রেপ্তার করে গোলাপগঞ্জ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ। ধৃতরা প্রাথমিক জেরায় পুলিশকে জানিয়েছে, বাংলাদেশের বাজারে এদেশের তুলনায় প্রত্যেক চোরাই মোবাইল ফোনের দ্বিতীয়বার বিক্রির ক্ষেত্রে অন্তত দুই হাজার টাকা করে বেশি দাম পাওয়া যায়। এছাড়া বাংলাদেশে এদেশের মোবাইল ফোন কেনার ক্ষেত্রে ঝুঁকিও কম । ফলে দ্রুত বাংলাদেশের বাজারে ভারতীয় চোরাই মোবাইলের চাহিদা বাড়ছে।

এরআগে গত ২৬ জুলাই গোলাপগঞ্জেই ৯৬টি চোরাই মোবাইল উদ্ধার করে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া অধিকাংশ মোবাইল ছিল উত্তর ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের। এরপর গত ১৬ অগাস্ট বৈষ্ণবনগর ১৫ টি চোরাই মোবাইল উদ্ধার হয়। সেগুলিও বাংলাদেশে পাচারের ছক  করা হয়েছিল।এর আগে জালনোট পাচারের রমরমা ছিল মালদা সীমান্তে। সম্প্রতি জালনোট পাচারের পরিমাণ কিছুটা হলেও কমে আসে । এই অবস্থার নতুন করে মোবাইল পাচার চক্র সীমান্তে সক্রিয় হওয়ায় উদ্বিগ্ন পুলিশ। মোবাইলফোন পাচার চক্রের এজেন্ট হিসেবে আরও কারা কাজ করছেন সে বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া শুরু করেছেন পুলিশের তদন্তকারীরা।

Sebak Deb Sarma

Published by: Elina Datta
First published: August 22, 2020, 12:59 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर