• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • AFGHANISTAN TALIBAN RULE CREATES TROUBLE IN EXPORT IMPORT TO INDIA PRICE RISE OF DRY FRUITS POPPY SEED

Afghanistan-India export import: আফগানিস্তানে তালিবান দখলের জের, হুড়হুড় করে বাড়ছে dry fruits-র-পোস্তর দাম

বাড়ছে ড্রাই ফ্রুটসের দাম

আফগানিস্তান (Afghanistan Crisis) থেকে প্রচুর পরিমাণে ড্রাই ফ্রুট (Dry Fruit Import) আমদানি করে ভারত (Afghanistan-India)।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: আফগানিস্তানের দখল নেওয়ার পরেই ভারতের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য সংক্রান্ত লেনদেন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সদ্যগঠিত  তালিবান সরকার। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে আফগানিস্তান থেকে যেসমস্ত পণ্য ভারত আমদানি হয়ে থাকে তার দাম বাজারে ঊর্ধমুখী। উল্লেখ্য ভারত আফগানিস্তানে  চিনি, চা, কফি, পোশাক, ওষুধ, বৈদ্যুতিন যন্ত্রপাতি সহ বিভিন্ন জিনিস রপ্তানি করে। অন্যদিকে আফগানিস্তান থেকে প্রচুর পরিমাণে ড্রাই ফ্রুট আমদানি করে ভারত। ভারতের মোট চাহিদার প্রায় ৮৫ শতাংশ ড্রাই ফ্রুটই আমদানি হয় আফগানিস্তান থেকে। এর পাশাপাশি  পেঁয়াজ, রসুন, আদা, অ্যাপ্রিকট, আঞ্জির, জিরে, হিং সহ বিভিন্ন পণ্য ভারতে আসে আফগানিস্তান থেকে।

আরও পড়ুন Indian stuck in Afghanistan: মেয়ে সুদূর আফগানিস্তানে! কয়েক হাজার কিলোমিটার দূরে হাওড়ায় দুশ্চিন্তায় প্রহর গুনছেন মা

মূলত কাবুল সহ আফগানিস্তান থেকেই ভারতবর্ষে আমদানি করা হয়ে থাকে আখরোট, কাঠবাদাম, খেজুর, কাজু, কিসমিস, সহ বিভিন্ন ড্রাই ফ্রুটস এবং বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় মশলা পোস্ত। গত ১৫ আগস্ট জঙ্গি সংগঠন তালিবান দখল নিয়েছে কাবুল সহ গোটা আফগানিস্তানের।  আর তারপর থেকেই প্রতিদিনই অস্বাভাবিক হারে মূল্য বৃদ্ধি ঘটে চলেছে বিভিন্ন ড্রাই ফ্রুটস ও পোস্ত সহ মশলার। সারা দেশের সাথে সাথে উত্তর দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন বাজারে দাম বেড়েছে ড্রাই ফ্রুটসের। অত্যধিক দাম বৃদ্ধি হওয়ায় বিক্রি যেমন কমে গিয়েছে তেমনি বাজারে আকাল দেখা দিয়েছে এইসব ড্রাই ফ্রুটসের।

আরও পড়ুন Afghanistan crisis: আফগানিস্তানে কেমন আছেন আত্মীয়রা? চিন্তায় দিন কাটছে বীরভূমে থাকা আফগানিদের

রায়গঞ্জ মোহনবাটি বাজারের ড্রাই ফ্রুটসের পাইকারি দোকানদার বলরাম চৌধুরী জানিয়েছেন, করোনার পাশাপাশি তালিবান আফগানিস্তানের  দখল নেওয়ার পর থেকে ওই দেশ থেকে আমদানি বন্ধ হয়ে গিয়েছে ড্রাই ফ্রুটসের।  যেসব মজুত মাল রয়েছে তারও দাম বাড়ানো হয়েছে। অন্যদিকে  দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন ক্রেতারা৷ খুচরা বিক্রেতা বাসুদেব দত্ত জানান, মহাজন এই সমস্ত জিনিসের একলাফে অনেকটাই দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। ফলে ক্রেতাদেরও বেশি দামে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে এই ধরণের খাবার। জিনিসের দাম বাড়ার কারণে বিক্রি অনেকটাই কমে গেছে। ক্ষতির মুখে পড়ছেব বিক্রেতারা। ক্রেতা সঞ্জয় সাহা জানান, বাড়িতে অনুষ্ঠান। তাই আকরঠ,পেস্তা সহ বিভিন্ন ধরনের জিনিস কিনতে এসে মাথায় যেন বাজ পড়েছে। দাম একলাফে অনেকটা বেড়ে যাওয়ায় তাদের বাজেটে সমস্যায় হচ্ছে বলে, তাঁর দাবি।

Published by:Pooja Basu
First published: