• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের পানশালায় ভাঙচুরের ঘটনায় অভিযুক্তরা গ্রেফতার উত্তর বঙ্গে

সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের পানশালায় ভাঙচুরের ঘটনায় অভিযুক্তরা গ্রেফতার উত্তর বঙ্গে

কলকাতার সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের একটি পানশালায় ভাঙচুরের ঘটনায় অভিযুক্ত চার যুবককে ভারত ভূটান সীমান্ত থেকে বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ গ্রেফতার করে ।

কলকাতার সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের একটি পানশালায় ভাঙচুরের ঘটনায় অভিযুক্ত চার যুবককে ভারত ভূটান সীমান্ত থেকে বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ গ্রেফতার করে ।

কলকাতার সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের একটি পানশালায় ভাঙচুরের ঘটনায় অভিযুক্ত চার যুবককে ভারত ভূটান সীমান্ত থেকে বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ গ্রেফতার করে ।

  • Share this:
    #আলিপুরদুয়ার: কলকাতার সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের একটি পানশালায় ভাঙচুরের ঘটনায় অভিযুক্ত চার যুবককে ভারত ভূটান সীমান্ত থেকে বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ গ্রেফতার করে । মঙ্গলবার তাদের আলিপুরদুয়ার আদালতে তোলা হলে ট্রানজিট রিমান্ডে বিধান নগর কমিশনারেটের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় ধৃতদের।
    অন্যদিকে, ধীরাজ সরকার ওরফে বুম্বাকে গ্রেফতার করে ইলেকট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানার পুলিশ ৷ ধীরাজ প্রাক্তন মন্ত্রী রচপাল সিংহের আপ্তসহায়ক ৷ জগজিৎ সিংকে সহযোগিতার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁকে ৷ জগজিৎ সিংকে ৬ দিনে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ বিধাননগর এসিজেএম আদালতের ৷
    জানা যায়, রঙ খেলার রাতে কলকাতার সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের একটি পানশালায় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বচসা বেধে যায়। স্থানীয়দের লোকজন ও পুলিশি হস্তক্ষেপে বিবাদ মিটে গেলেও ভোররাতে ফের বিবাদ শুরু হয়। দুই গোষ্টীর মধ্যে মারামারির ঘটনায় ভাঙচুর চলে পানশালায়। এরপর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।
    পুলিশ সূত্রের খবর, ধৃতরা কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি হয়ে সিকিম পাড়ি দেয়। পরবর্তীতে তারা সিকিম থেকে আলিপুরদুয়ার জেলার জয়গা শহরে হাজির হয়। সেখানে ভারত ভূটান সীমান্ত এলাকায় একটি হোটেলে আস্তানা গাড়ে তারা। সূত্র মারফত বিধাননগর পুলিশের কাছে খবর যায়। ছুটে আসেন বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ। এরপর আলিপুরদুয়ার জেলা পুলিশের জয়গাঁ থানার সহযোগীতায় গতকাল রাতে ধৃতদের গ্রেপ্তার করা হয়।
    ধৃতরা হলেন রবিশঙ্কর সিং(মানিকপুর), ফইজ আলম(বেনিয়াপুকুর), পাচকে শর্মা(লেকটাউন) বিষ্ণু শর্মা(লেকটাউন, বাঙুর) ধৃতদের বিরুদ্ধে ৩২৪, ৩৪১ ৫০৬, ৩৪ ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।
    First published: