Home /News /north-bengal /
Abhishek Banerjee: শুনলেন মানুষের অভাব-অভিযোগ, ধূপগুড়িতে জনসংযোগ সারলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

Abhishek Banerjee: শুনলেন মানুষের অভাব-অভিযোগ, ধূপগুড়িতে জনসংযোগ সারলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

এদিন শিলিগুড়ি থেকে সড়কপথে ধূপগুড়িতে আসার পথে রাস্তায় নেমে পড়েন তিনি ৷ রাস্তার পাশে অপেক্ষারত মানুষের অভাব অভিযোগ শুনলেন অভিষেক।

  • Share this:

আবীর ঘোষাল: ধূপগুড়িতে জনসভা করতে আসার পথে জনসংযোগ সারলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। এদিন শিলিগুড়ি থেকে সড়কপথে ধূপগুড়িতে আসার পথে রাস্তায় নেমে পড়েন তিনি ৷ রাস্তার পাশে অপেক্ষারত মানুষের অভাব অভিযোগ শুনলেন অভিষেক।

এদিন যেখানে তিনি নেমে যান সেখানে একটি গ্রামীন হাট বসে। আর সেই গ্রামীণ হাটকে কেন্দ্র করেই স্থানীয় বাসিন্দাদের দিন গুজরান হয় ৷ এদিন স্থানীয় বাসিন্দারা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে দেখে কার্যত অবাক হয়ে যান। তারা অভিযোগ করেন বারবার পঞ্চায়েত ও জেলা পরিষদের সদস্যদের কাছে বারবার অভিযোগ জানালেও মেলে না কোনও সাহায্য। তাই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে পেয়ে তাদের অভাব, অসুবিধার কথা তুলে ধরেন।

আরও পড়ুন- ৬৫৪ একরের বিশ্বমানের দেওঘর বিমানবন্দর! উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি! জেনে নিন এই Airport-এর বিশেষ বিশেষ গুণ

স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেন গ্রামীন হাট থাকলেও তা বন্ধ হয়ে আছে। পরিকাঠামো প্রস্তুত থাকলেও তা ব্যবহার করা হয় না। এই অবস্থাতে তাদের ব্যবসা করতে অসুবিধা হচ্ছে। তিনি যদি একটু ব্যবস্থা করে দেন। অভিষেক গোটা এলাকা ঘুরে দেখেন। কথা বলেন বাসিন্দাদের সঙ্গে। বাসিন্দাদের সমস্যার সমাধান যাতে দ্রুত হয়ে যায় সে বিষয়েও নিশ্চয়তা দেন অভিষেক।

এর আগে গতকালই ফালাকাটা বিধানসভার ছোট শালকুমার ছয়মেলের বাসিন্দারা ৪৫ দিন ধরে বিদ্যুতহীন ছিলেন। অনেক অভিযোগ জানিয়েও কোনও সুফল পায়নি ফালাকাটার এই গ্রাম। কিন্তু 'এক ডাকে অভিষেক'-এ ফোন করতেই একদিনে কাজ হাসিল হয়ে গেল। ফালাকাটা বিদ্যুৎ দফতরের বারবার লিখিত জানিয়েও যেখানে কাজ হচ্ছিল না, সেখানে 'এক ডাকে অভিষেক'-এ ফোন করতেই লোক পাঠিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ট্রান্সমিটার বসল ওই গ্রামে।

আরও পড়ুন- 'কোনও ধান্দাবাজ নেতার কথা শুনবেন না', পাহাড়ে পাঁচ বড় ঘোষণা মমতার

প্রসঙ্গত, অভিষেক জানিয়েছিলেন, “7887778877 নম্বর চালু করা হল। আমার প্রতি এলাকার মানুষ ভরসা রেখেছে। আমার জন্ম কলকাতায় হলেও, আমার মৃত্যু যেন এই ডায়মন্ড হারবারে হয়।” শুধু তাই নয়, পরের বার আরও বড় আকারে নিঃশব্দ বিপ্লব করা হবে বলেও জানিয়েছিলেন তৃণমূলের এই সাংসদ।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Abhishek Banerjee, AITMC

পরবর্তী খবর