corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনের জের ! রিক্সায় মানুষের বদলে সবজি ! পেশা বদল যুবকের !

লকডাউনের জের ! রিক্সায় মানুষের বদলে সবজি ! পেশা বদল যুবকের !

ঘুম ভাঙতেই রিক্সা নিয়ে হাজির বাজারে। টাটকা সবজি তুলে বেরিয়ে পড়া।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি:  করোনার কোপে বদলে গেল পেশা! দেশজুড়েই বাড়ছে করোনার থাবা। এর প্রতিরোধে চলছে লকডাউন। স্বাভাবিক জনজীবন ব্যহত। পরিবহন ব্যবস্থা পুরোপুরি বন্ধ। লোক সমাগম করা যাবে না। নির্দেশিকা রাজ্য এবং কেন্দ্রের। কোনোভাবেই এক জায়গায় ৭ জনের বেশী জড়ো হওয়া যাবে না। দেশবাসীকে গৃহ বন্দী রাখার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রীর। লকডাউন মানতেই হবে। স্পষ্ট নির্দেশ সরকারের। আর এই লকডাউনের জেরে সঙ্কটে রিক্সাওয়ালা থেকে টোটো চালকেরা।

প্রতিদিনের আয়েই যে চলে তাদের সংসার। কিন্তু লকডাউনে পথে দেখা নেই টোটো, অটো, রিক্সার। এই অসহায়দের কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে বিভিন্ন সংগঠন। পাশে সরকার। তবু ছোটো ছোটো ছেলে মেয়েদের মুখে খাবার তুলে দিতেই পেশাই বদলে দিয়েছে শিলিগুড়ির এক রিক্সাচালক! রিক্সায় যাত্রী নেই। পরিবর্তে উঠেছে সবজি। আর সেই সবজি নিয়ে এক পাড়ার থেকে অন্য পাড়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে সে। তাঁর নাম সফিকুল মিঁয়া। পেটের খিদের তাগিদেই বদলে ফেলেছে নিজের পেশা। এছাড়া বিকল্প পথ নেই বলছে সফিকুল। বাড়ি শিলিগুড়ির চেকপোস্ট এলাকায়।  ঘুম ভাঙতেই রিক্সা নিয়ে হাজির বাজারে। টাটকা সবজি তুলে বেরিয়ে পড়া। এক পাড়া থেকে অন্য পাড়ায় হাঁক দিচ্ছে সে! ফুলকপি লাগবে? আলু লাগবে? এঁচোড় চাই? ঘরের খোলা জানালা দিয়ে আসছে সফিকুলের হাঁক! একটু অচেনা আওয়াজ! পাড়ার সেই চেনা সবজিওয়ালা তো নয়! তাহলে আবার কে এল? খোঁজ নিতেই সামনে আসে সফিকুলের পেশা বদলের কাহিনী! পাড়ার দাদা, বৌদিরাও সবজি কিনছে ওর কাছ থেকে। এটাও তো একটা কাজ। দিনভর সবজি বিক্রি করে যে আয় হচ্ছে তা দিয়েই সংসার চালাচ্ছে সফিকুল।  এতে বাড়ির লোকেদের মুখেও হাসি ফুটিয়ে তুলেছে সে। সফিকুলের এই পেশা বদলকে কুর্ণিশ কলেজপাড়ার গৃহবধূ তনিমা ঘোষের। তিনি জানান, এই সঙ্কটে ওর পেশা বদল তারিফযোগ্য।

PARTHA PRATIM SARKAR

Published by: Piya Banerjee
First published: April 3, 2020, 11:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर