Home /News /north-bengal /
শ্রমিক পরিবারে শিক্ষার আলো পৌঁছতে পথে একঝাঁক তরুণ-তরুণী! শিশুদের হাতে দিল সহজপাঠ-ধারাপাত

শ্রমিক পরিবারে শিক্ষার আলো পৌঁছতে পথে একঝাঁক তরুণ-তরুণী! শিশুদের হাতে দিল সহজপাঠ-ধারাপাত

শিলিগুড়ি শহর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে চা বাগান ঘেঁষা ছোট্ট গ্রাম ভুবুনগুড়ি। বাগানের শ্রমিকদের সন্তানেরা শিক্ষার আলো থেকে অনেকটাই দূরে।

  • Last Updated :
  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ওরা চা বাগানের শ্রমিক পরিবারের সন্তান। দু'বেলা পেটপুরে খাওয়া যেখানে জোটেনা। সেখানে পুষ্টিজাত খাবার ওদের কাছে দুঃস্বপ্ন। আর লেখাপড়া তো বিলাসিতা। বহু শিশু আজও শিক্ষার আলো পায়নি। অথচ সবার জন্যই তো শিক্ষা!

শিলিগুড়ি শহর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে চা বাগান ঘেঁষা ছোট্ট গ্রাম ভুবুনগুড়ি। অভিভাবকদের নুন আনতে পান্তা ফুরোনর মতো অবস্থা। তাই ওঁদের সন্তানেরা শিক্ষার আলো থেকে অনেকটাই দূরে। কিন্তু শিশুদের শিক্ষার বিকাশ প্রয়োজন। সেই কাজে এগিয়ে এল শিলিগুড়ির একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শিলিগুড়ি ইউনিক সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্যরা। রবিবাসরীয় ছুটির দিনে আজ ইউনিক টিমের সদস্য সদস্যারা পৌঁছে যায় শহর থেকে দূরের নকশালবাড়ি ব্লকের এই ছোট্ট গ্রামে। সঙ্গে শিক্ষা সামগ্রী নিয়ে। স্কুল ব্যাগ, খাতা, পেনসিল, স্লেট, চক এবং আদর্শ লিপি বই তুলে দেওয়া হল গ্রামের শিশুদের হাতে।

বই, খাতার অভাবে ওদের দিন কাটতো ইতিউতি খেলাধূলো করে। আজ থেকে ওরা পড়াশোনায় ব্যস্ত রাখবে নিজেদের। এটাই ওদের অঙ্গীকার। শিশুদের মধ্যে শিক্ষার বিকাশই ওদের লক্ষ্য। প্রথম দফায় আজ ৪০ জন শিশুর হাতে সংগঠনের সদস্যরা বই-খাতা তুলে দেয়। সঙ্গে টিফিন হিসেবে কেক ও বিস্কুটের প্যাকেটও! সংগঠনের অন্যতম সদস্য রাকেশ দত্ত জানান, আগামী দিনে আরও পিছিয়ে থাকা গ্রামে আমরা যাব। আমাদের লক্ষ্য শিশু শিক্ষার অগ্রগতি। সাধারন মানুষেরা এগিয়ে এলে এই কাজ সফল হবে। এর আগেও শহর ও শহর ঘেঁষা এলাকায় অসহায়, দুঃস্থ ছাত্র, ছাত্রীদের হাতে শিক্ষা সামগ্রী তুলে দিয়েছে সংগঠন। যেকোনো প্রয়োজনে এগিয়ে এসেছে। লকডাউনের সময়ে প্রথম দিন থেকে ওরা ছিল রাস্তায়। এবারে লক্ষ্য শিশু মনে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়া। সংগঠনের এ হেন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

Partha Sarkar

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Siliguri