Home /News /north-bengal /
টিকটকেই মরণফাঁদ! অসাবধানতায় পা হড়কে নদীতে পড়ে মৃত্যু বাংলার যুবকের

টিকটকেই মরণফাঁদ! অসাবধানতায় পা হড়কে নদীতে পড়ে মৃত্যু বাংলার যুবকের

নদী থেকে তোলা হচ্ছে বিপুলের দেহ, পারে অপেক্ষমান পরিবারের লোক।

নদী থেকে তোলা হচ্ছে বিপুলের দেহ, পারে অপেক্ষমান পরিবারের লোক।

ভাসিডাঙা এলাকার বাসিন্দা বিশাল দাসের অভিযোগ,হেমতাবাদ শহরের কয়েকজন যুবক এই নদীর ধারে টিকটক ভিডিও করত।

  • Share this:

উত্তর দিনাজপুর: ‌নদীর ধারে বন্ধুদের সঙ্গে নাচের স্ট্যান্ট অনুশীলন করছিলেন তিনি। মুহূর্তের অসাবধানতায় পা হড়কে পড়ে গিয়ে বিপুল সরকার নামক এক যুবকের মৃত্যু হল। রবিবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ থানার ভাসিডাঙা গ্রামে।হেমতাবাদ থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

জানা গিয়েছে, হেমতাবাদ থানার কসবা মহশো গ্রামের ছয় বন্ধু মিলে হেমতাবাদ থানার ভাসিডাঙা গ্রামে কুলিক নদীর ধারে নাচের স্টান্ট অনুশীলন করছিলেন।আচমকা নদীতে পা হড়কে পড়ে গিয়ে জলে তলিয়ে যায় তাঁর। পুলিশ এসে তাঁর নিথর দেহ উদ্ধার করে হেমতাবাদ প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে।

ভাসিডাঙা এলাকার বাসিন্দা বিশাল দাসের  অভিযোগ,হেমতাবাদ শহরের কয়েকজন যুবক এই  নদীর ধারে টিকটক ভিডিও করত। তাঁর মতে এই অনুশীলন করতে গিয়ে জলে ডুবে গিয়েছেন বিপুল।

তবে বিপুলের বন্ধু হৃদয় অধিকারীর দাবি টিকটক নয়, নাচের মহড়া চালাচ্ছিলেন তাঁরা। অনুশীলন চলাকালীন পা হড়কে নদীতে পড়ে যান বিপুল। বন্ধুরা কেউ সাতার না জানায় তাঁকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

বিপুলের  প্রতিবেশী নিখিল সরকার জানান,নদীতে স্নান করতে গিয়েই প্রতিবেশী বিপুলের মৃত্যু হয়েছে। ওই এলাকায় সে সময়ে লোকজন না থাকায় মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Published by:Arka Deb
First published:

Tags: TikTok

পরবর্তী খবর