হোম /খবর /উত্তরবঙ্গ /
গাড়ি সোজা ৬০০ ফুট গভীর খাদে, পাহাড়ে বেড়াতে গিয়ে আর ফেরা হল না ৫ বন্ধুর

গাড়ি সোজা ৬০০ ফুট গভীর খাদে, পাহাড়ে বেড়াতে গিয়ে আর ফেরা হল না ৫ বন্ধুর

পাহাড়ে বেড়াতে গিয়ে আর ফেরা হল না ৫ বন্ধুর

  • Last Updated :
  • Share this:

#শিলিগুড়ি: পাহাড়ে বেড়াতে গিয়ে আর ফেরা হল না ৫ বন্ধুর! কার্শিয়ংয়ে ওঠার মুখে পাহাড়ী বাঁকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সোজা ৬০০ ফুট গভীর খাদে পড়ে যায় গাড়ি! সোমাবার রাতে ঘরে ফিরল চার বন্ধুর কফিনবন্দি নিথর দেহ, শোকে কাতর শিলিগুড়ির রথখোলা এবং মিলনপল্লি। এখনও উদ্ধার হয়নি এক বন্ধুর দেহ। নিখোঁজ যুবকের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ ও দমকল কর্মীরা।

লকডাউনে বাড়ির বাইরে যাওয়া হয়নি, তাই স্বাধীনতা দিবসের দিন বেরিয়ে পড়ে ৫ বন্ধু!  ১৫ অগাস্ট সকালে গাড়ি চেপে ডুয়ার্সের লাটাগুড়ির পথে পাড়ি দেয় রিশপ দাস, বিক্রম দাস, সুব্রত দাস এবং রাজ সিং (রোনাল্ডো)। দিনভর ডুয়ার্স বেড়িয়ে রাতের দিকে ফিরে আসে শিলিগুড়িতে। ফের নয়া প্ল্যান মাথায় আসে। এবারে ডেস্টিনেশন পাহাড়। সঙ্গে গাড়িতে ডেকে নেয় আরেক বন্ধু অর্ঘ্যদ্বীপ কুণ্ডুকে।  পাঁচ বন্ধু রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ রওনা দেয় রোহিণী রোড ধরে কার্শিয়ংয়ের পথে। পাহাড়ে তখন মুষলধারে বৃষ্টি। রাত ১২টার একটু আগে পর্যন্ত এক বন্ধুর সঙ্গে তাঁর মায়ের কথাও হয় মোবাইলে। রাত ১২টার পর আর কাউকেই পাওয়া যায়নি ফোনে। সব ফোনই ছিল স্যুইচড অফ মিলেছিল বলে জানা যায়! আতঙ্কিত হয়ে পড়েন পাঁচ পরিবার। রাতে ঘুম নেই। গতকাল শিলিগুড়ি থানায় মিসিং ডায়েরি করে দুই অভিভাবক। কপি চলে যায় কার্শিয়ং থানায়। সেইমতো গতকাল বিকেলের পর থেকে তল্লাশি শুরু করে পুলিশ ও দমকল কর্মীরা।

পরিবার এবং পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, কার্শিয়ংয়ে ঢোকার আগে ভিউ পয়েন্টে কার্গিল ধারায় নিয়ন্ত্রন হারিয়ে খাদে গিয়ে পড়ে গাড়ি। দুমড়ে মুচড়ে গিয়েছে গাড়ি, শুধু নম্বর প্লেট উদ্ধার করা গিয়েছে। রবিবার রাতে দুই বন্ধুর দেহ উদ্ধার করা হয়। সোমবার দুপুরের পর আরও দুই বন্ধুর নিথর দেহ মেলে। চার বন্ধুরই বাড়ি রথখোলায়। খবর পৌঁছতেই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। চার বন্ধুর মধ্যে দু'জন সূর্যসেন কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র। একজন বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের ক্লাস টুয়েলভের ছাত্র। এখোনও নিখোঁজ রাজ সিংয়ের দেহ।

Partha Pratim Sarkar

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Siliguri