Home /News /north-24-parganas /
100 days work money fraud|| ১০০ দিনের কাজে মেলেনি টাকা, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সামনেই নালিশ কেন্দ্রীয় দলকে 

100 days work money fraud|| ১০০ দিনের কাজে মেলেনি টাকা, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সামনেই নালিশ কেন্দ্রীয় দলকে 

100 days work money fraud: ১০০ দিনের কাজে মেলেনি টাকা, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সামনেই নালিশ কেন্দ্রীয় দলকে। ঘটনার পর থেকেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা ব্লকের রনঘাট পঞ্চায়েতের আউলডাঙ্গা গ্রামে।

  • Share this:

    #বারাসাত: ১০০ দিনের কাজের টাকা না পেয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের সামনে সোজা পঞ্চায়েতের দুর্নীতির নালিশ জানালেন এলাকার ক্ষুদ্ধ গ্রামবাসীরা। আর তাতেই অস্বস্তিতে পরতে হল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিকে। এই নিয়ে রীতিমতো গ্রামবাসীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপা রায়। ঘটনার পর থেকেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তর ২৪ পরগণার বাগদা ব্লকের রণঘাট পঞ্চায়েতের আউলডাঙ্গা গ্রামে।

    স্থানীয় সূত্রের খবর, আউলডাঙ্গা গ্রামে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এসেছিল ১০০ দিনের কাজের খতিয়ান দেখতে। তারা ১০০ দিনের কাজের খতিয়ান পরিদর্শন করে ফেরার সময় গ্রামবাসীরা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের ঘিরে ধরে পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ জানান। ঘটনা স্থলে ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপা রায় ও। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে ১০০ দিনের কাজের টাকা পাচ্ছেন না তারা। তাদের জব কার্ডে টাকা ঢুকলে, সেই টাকা পঞ্চায়েত সদস্যরা তুলে নিয়ে নিজেরাই ভাগবাটোয়ারা করে নেয়। স্থানীয় সুপারভাইজারদের কাছে টাকা চাইতে গেলে বলে, টাকা দেওয়া হয়ে গিয়েছে।

    আরও পড়ুন: তথ্য গোপন করছেন পার্থ, উল্টোরূপ অর্পিতার! আদালতে আজ ঝড় তুলবে ইডি

    ১০০ দিনের কাজ সংক্রান্ত একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন ক্ষুদ্ধ গ্রামবাসীরা। তখনই গ্রামবাসীদের আটকাতে, প্রতিবাদ জানাতে যায় পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপা রায়। এরপর গ্রামবাসীদের সঙ্গে শুরু হয় বচসা। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সামনে ঘটা এই ঘটনায় রীতিমতো অস্বস্তিতে পড়তে হয় স্থানীয় প্রশাসনকে।গ্রামবাসী জয়দেব বিশ্বাস বলেন, দীর্ঘ দুই বছর ধরে কৃষকরা কাজ করছে। অথচ আমাদের জব কার্ডের টাকা আসছে সুপার ভাইজাররা সেই টাকা তুলে নিয়ে নিজেরা ভাগযোগ করেনিচ্ছে। একটা চাষিও ১০০ দিনের কাজের টাকা পায়নি। যদিও গ্রামবাসীদের অভিযোগ শোনার পর, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল তাদেরকে আশ্বাসদেন। জানানো হয়, গ্রামবাসীদের কাজের সম্পূর্ণ টাকা তারা পাবেন।

    আরও পড়ুন: ঘুম ভাঙতেই জেরা শুরু, ঘুরবে তদন্তের মোড়! আজ ফের পার্থ-অর্পিতাকে আদালতে পেশ

    অন্য দিকে, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপা রায় বলেন, ওই এলাকার মানুষ পিছিয়ে পরা। কেন্দ্রীয় সরকার যে আমাদের তিন বছর ধরে টাকা দিচ্ছেন না সেটা গ্রামবাসীরা জানেন না। ওরা নিম্নস্তরের মানুষ, কে কেন্দ্র কে রাজ্য তা ওরা চেনে না। ওদেরকে বিজেপির পক্ষ থেকে সাজিয়ে বলতে বলেছে। আমি জোর গলায় বলব কেন্দ্র সরকার আমাদের টাকা দিচ্ছে না তাই গ্রামবাসীরা টাকা পাচ্ছে না। ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে কিছু নিম্ন শ্রেণীর মানুষকে উস্কে দিয়ে। বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মানুষ জানেন এই রাজ্যে পঞ্চায়েততে কারা লুঠ করছে। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের আশ্বাসের পর অবশ্য আশায় বুক বেঁধেছেন ১০০ দিনের কাজ করে টাকা না পাওয়া গ্রামবাসীরা।

    রুদ্র নারায়ণ রায়

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: North 24 pargana

    পরবর্তী খবর