Home /News /north-24-parganas /
North 24 Parganas news: কৃষি পাঠশালায় পাঠ নিতে ছুটছেন কৃষকরা! শিক্ষকের ভূমিকায় কৃষি আধিকারিকরা

North 24 Parganas news: কৃষি পাঠশালায় পাঠ নিতে ছুটছেন কৃষকরা! শিক্ষকের ভূমিকায় কৃষি আধিকারিকরা

মাঠেই

মাঠেই চলছে কৃষি পাঠশালা

এই কৃষি পাঠশালাই সুশিক্ষিত কৃষক গড়ে একদিন বদলে দেবে কৃষি জগতকে, এমনটাই আশা আধিকারিকদের

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা: বয়স হয়েছে তবুও বই খাতা নিয়ে পাঠশালায় ছুটছেন সকলেই। একেবারে স্কুল জীবনের মতো নিয়মিতভাবেই শিক্ষার পাঠ নিতে বেশ আগ্রহী সকলেই। এই পাঠশালার পড়ুয়াদের এমন উৎসাহ দেখে খুশি শিক্ষকরাও। এতক্ষণ যে পাঠশালার কথা বলা হল, সেটি আসলে কৃষি পাঠশালা। এই পাঠশালার সকল পড়ুয়ারাই কৃষিকাজের সঙ্গে যুক্ত। আর শিক্ষকরা হলেন কৃষিবিজ্ঞানী ও কৃষি আধিকারিক।

    সপ্তাহের নির্দিষ্ট দিনে ২৫ থেকে ৭০ বছর বয়সী কৃষকরা চলে আসেন গ্রামের এই কৃষি পাঠশালায়। কৃষি দফতর অবশ্য এই পাঠশালাকে ফার্ম স্কুল নাম দিয়েছেন। এই পাঠশালার মাধ্যমে কৃষিতেই কৃষকের ভবিষ্যত গড়ে দিতে বিজ্ঞান ভিত্তিক চাষাবাদের প্রয়োজনীয়তা বোঝানোর দায়িত্ব নিয়েছেন কৃষি আধিকারিকরা।কৃষি বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, এই কৃষি পাঠশালা থেকে শিক্ষা নিয়ে কৃষি কাজে মনোবল বাড়বে প্রত্যেক কৃষকের।

    উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়া এক নম্বর ব্লকের ইছাপুর গ্রামে দেখা মিলল এরকমই পাঠশালার। রাজ্য কৃষি দফতরের আতমা প্রকল্পের উদ্যোগে ৩৫ জন কৃষককে নিয়ে ইছাপুর গ্রামে শুরু হয় কৃষি পাঠশালা। বিজ্ঞানভিত্তিক উপায়ে কীভাবে চাষ করলে বাড়বে ফলন, যা আগামীদিনে একজন কৃষকের অর্থনৈতিক ভবিষ্যত সুরক্ষিত করতে সহায়তা করবে, এরই পাঠ শেখানো হয় এই কৃষি পাঠশালায়। রোগ-পোকার হাত থেকে কীভাবে কৃষি ফসলকে রক্ষা করা যাবে ? কোন সময়ে কীভাবে কীধরনের চাষাবাদ করা উচিত ? মরশুম অনুযায়ী বিকল্প চাষ করে কীভাবে অধিক মুনাফা ঘরে তোলা যাবে ? তার পুঙ্খানুপুঙ্খ শিক্ষা কৃষি আধিকারিকদের কাছ খেকে পেয়ে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা।

    শুধু তাই নয়, আতমা প্রকল্পের উদ্যোগে প্রযুক্তিগতভাবে মেশিনের সাহায্যে ধান রোয়ার পদ্ধতিতে অধিক পরিমাণ সোনার ফসল ঘরে তুলতে সাহায্য করেছে বলে জানিয়েছেন ইছাপুরের কৃষকরা। কৃষি পাঠশালায় কৃষকদের কৃষি শিক্ষায় উন্নতি ঘটাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন হাবড়া এক নম্বর ব্লকের কৃষি সহ অধিকর্তা কুসুম কমল মজুমদার। এই উদ্যোগকে বাস্তবায়িত করতে মাঠে নেমে পড়েছেন ব্লকের কৃষি সম্প্রসারণ আধিকরিকরাও। এই কৃষি পাঠশালাই সুশিক্ষিত কৃষক গড়ে একদিন বদলে দেবে কৃষির জগতকে। কৃষিতে লাভ নেই, এই কারণ দেখিয়ে যারা বিকল্প রোজগারের আশায় পা বাড়াচ্ছেন, তারাও কৃষিতেই ভবিষ্যত গড়তে ফের ফিরবেন মাঠে। এমনই আশার বাণী শোনালেন কৃষি আধিকারিকরা।

    Rudra Narayan Roy

    First published:

    Tags: Farmers, Habra, North 24 Pargana news

    পরবর্তী খবর