Home /News /north-24-parganas /
North 24 Parganas: বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা, লাগাম টানতে তৎপর প্রশাসন

North 24 Parganas: বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা, লাগাম টানতে তৎপর প্রশাসন

জমা [object Object]

জেলায় নতুন করে বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা। যা আবারো দুশ্চিন্তার কারণ বাড়াচ্ছে রাজ্য ও জেলা প্রশাসনের। ইতিমধ্যেই সরকারের তরফ থেকে একাধিক নির্দেশিকাও দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা : জেলায় নতুন করে বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা। যা আবারো দুশ্চিন্তার কারণ বাড়াচ্ছে রাজ্য জেলা প্রশাসনের। ইতিমধ্যেই সরকারের তরফ থেকে একাধিক নির্দেশিকাও দেওয়া হয়েছে। সেই নির্দেশিকা মেনেই ডেঙ্গি দমনে তৎপর হল উত্তর ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন স্বাস্থ্য বিভাগ। কোন কোন এলাকায় জল জমে রয়েছে, কোথায় কোথায় নিকাশির সমস্যা রয়েছে, কোন কোন জায়গায় ডেঙ্গি মশার লার্ভা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, সেসমস্ত তথ্য সংগ্রহ করতে শুরু করেছে স্থানীয় প্রশাসন। সেইসাথে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের পাশাপাশি, সচেতনতা প্রচারের উপরও জোর দিয়েছে প্রশাসন। একইসাথে ডেঙ্গি মশার লার্ভা নিধনে কীটনাশক স্প্রে, গাপ্পি মাছ ছাড়া সহ একাধিক পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে জেলার বিভিন্ন স্থানীয় প্রশাসনের তরফে থেকে। প্রশাসনিক সূত্রে খবর, আগস্ট এর প্রথম সপ্তাহে জেলায় ডিঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ২৭০ জন। যারমধ্যে শহর এলাকায় ১৯০ জন এবং গ্রামীণ এলাকায় ৮০ জন। গত বছর যে সংখ্যাটা ছিল মাত্র ৭১ জন। এই রিপোর্ট সামনে আসতেই ঘুম উড়েছে জেলা প্রশাসনের কর্তাদের। ডেঙ্গি আক্রান্তের তালিকায় একেবারে শীর্ষে রয়েছে পানিহাটি পুরসভা।

     

     

    এই এলাকায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৫ জন। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বিধাননগর পুরনিগম। এখানে এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ জন। তৃতীয় স্থানে রয়েছে কামারহাটি পুরসভা। এই পুর এলাকায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩ জন। এছাড়াও জেলার অন্যান্য জায়গায়ও ডিঙ্গি আক্রান্তের খবর পাওয়া যাচ্ছে। টিটাগড়ে ১২ জন, ভাটপাড়ায় জন, উত্তর দমদমে আট জন, নৈহাটিতে সাত জন, ব্যারাকপুরে সাত জন, বারাসাতে সাত জন, খড়দহ, মধ্যমগ্রাম, দক্ষিণ দমদম, হাবরাতে তিন জন করে ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়েছেন।

    আরও পড়ুনঃ শস্য বিমা দিচ্ছে সরকার, নাম নথিভুক্ত করতে ভিড় জেলা কৃষি দফতরে

     

     

    শহর এলাকার পাশাপাশি গ্রামীণ এলাকাতেও ডেঙ্গির বার বাড়ন্ত চিন্তায় রেখেছে প্রশাসনকে। গ্রামীণ এলাকায় ডেঙ্গি আক্রান্তের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে হাবরা দু নম্বর ব্লক। চার আগস্ট পর্যন্ত এই এলাকায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ জন। এরপরেই রয়েছে ব্যারাকপুর দু নম্বর ব্লক। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ জন।

    আরও পড়ুনঃ মিলবে জল যন্ত্রণা থেকে মুক্তি, কাজের গতি আনতে পরিদর্শনে স্বয়ং বিধায়ক!

     

     

    তৃতীয় স্থানে থাকা রাজারহাট ব্লকে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ জন। তবে সরকার সব রকমের চেষ্টা চালাচ্ছে, ডেঙ্গু সেরকম আকার নিতে পারবে না বলেই জানান বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এখনই যদি ডেঙ্গির ঊর্ধ্বমুখী গ্রাফে লাগাম টানা না যায়, তাহলে আগামী দিনে ভয়াবহ আকার ধারণ করবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

     

     

     

    Rudra Narayan Roy

    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Barasat, North 24 Parganas

    পরবর্তী খবর