মুখ্যমন্ত্রী বিদায় নিতেই হাসপাতাল থেকে খুলে নেওয়া হল কুলার– News18 Bengali

মুখ্যমন্ত্রী বিদায় নিতেই হাসপাতাল থেকে খুলে নেওয়া হল কুলার

সম্প্রতি সরকারি আধিকারিকদের তিনি নির্দেশ দেয় যে তার সফরের জন্য যেন কোনও আলাদা ব্যবস্থা না করা হয় ৷

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 06, 2017 02:24 PM IST
মুখ্যমন্ত্রী বিদায় নিতেই হাসপাতাল থেকে খুলে নেওয়া হল কুলার
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 06, 2017 02:24 PM IST

#লখনউ: মুখ্যমন্ত্রীর পদে শপথ নেওয়ার পর থেকেই একের পর এক নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ ৷ তাদের মধ্যে বেশ কয়েকটির জন্য তাকে বির্তকের মুখেও পড়তে হয়েছে ৷ সম্প্রতি সরকারি আধিকারিকদের তিনি নির্দেশ দেয় যে তার সফরের জন্য যেন কোনও আলাদা ব্যবস্থা না করা হয় ৷ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর এই নির্দেশ মানলেন না এলাহাবাদের স্বরূপরানি নেহেরু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷ ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই মুখ্যমন্ত্রীর সফরকে ঘিরে হাসপাতালে রাতারাতি ভাড়া করে লাগানো হল কুলার ৷

দুদিনের সফরে এলাহাবাদে গিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ ৷ এলাহাবাদের স্বরূপরানি নেহেরু হাসপাতাল ঘুরে দেখার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের ৷ তার সফরের জন্য হাসপাতালের প্রত্যেক ওয়ার্ডে বসানো হয় ২০টি এয়ার কুলার ৷ হাসপাতালের রোগীরা এতে স্বস্তি পেলেও তা ছিল মাত্র কিছুক্ষণের জন্য ৷ যোগী হাসপাতাল পরিদর্শন করে চলে যাওয়ার পর সঙ্গে সঙ্গে খুলে নেওয়া হয় কুলারগুলি ৷

এক রোগীর পরিবাবের সদস্য জানিয়েছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী পরিদর্শনে আসবে বলে হাসপাতালে কুলার লাগানো হয়েছিল ৷ এত গরমে কুলার অত্যন্ত দরকারি কিন্তু এই হাসপাতালে তা কেবল মুখ্যমন্ত্রীকে সন্তুষ্ট করার জন্য লাগানো হয়েছিল, রোগীদের কথা ভেবে নয় ৷’

এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে বিভিন্ন মহলে ৷ এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে হাসপাতালের সুপার জানিয়েছেন, ‘আমাদের হাসপাতালে প্রায় ৭৫ থেকে ৮০টি এয়ার কুলার রয়েছে ৷ গতকাল কয়েকটি কুলার কাজ করছিল না ৷ টেকনিশয়ান -ইন-চার্জ সেগুলি বদলানোর কথা বললে আমরা তাতে রাজি হয়ে যায় ৷ এটা সত্যি নয় যে আমরা ২০টি বেশি কুলার নিয়ে এসেছিলাম ৷ রোগীরা কী বলছে আমি জানি না ৷ তবে কুলার ভাড়া করার বিষয়টি সত্যি নয় ৷’

কয়েকদিন আগে শহিদ প্রেম সাগরের বাড়িতে যান উত্তরপ্রদেশর মুখ্যমন্ত্রী ৷ সেই সময় তার জন্য আলাদার ব্যবস্থা যেমন এসি, সোফা, ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুতের ব্যবস্থা করা হয়েছিল শহীদের বাড়িতে ৷ এরপর থেকেই সমালোচনার ঝড় উঠে বিভিন্ন মহলে ৷

পরিস্থিতি সামাল দিতে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেন, তাঁর জন্য বিশেষ কোনও আয়োজন করার দরকার নেই৷ প্রয়োজনে মেঝেতে বসতে কোনও অসুবিধা নেই তাঁর ৷ কিন্তু তাঁর এই নির্দেশ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ না মানায় ফের জমেছে বিতর্ক৷

First published: 02:24:28 PM Jun 06, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर