Home /News /national /
চার প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন করে তিন টুকরো করলেন স্ত্রী

চার প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন করে তিন টুকরো করলেন স্ত্রী

Representational Image. Courtesy: Pixabay

Representational Image. Courtesy: Pixabay

গত পয়লা এপ্রিল ঝগড়ার পর ঠান্ডা মাথায় স্বামীকে খুনের পরিকল্পনা করেন কল্পনা।

  • Share this:

    #গোয়া: স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক মেনে নিতে পারননি। আর তাতেই মর্মান্তিক পরিণতি হল স্বামীর। নিজের চার প্রেমিককে নিয়ে স্বামীকে খুন করে তিন টুকরোয় কেটে ফেললেন স্ত্রী।

    কর্নাটকের বালিহোঙ্গালের কুর্চেরম এলাকার ৩০ বছরের বাসিন্দা কল্পনা বারিকির বিয়ে হয়েছিল ৩৮ বছরের বাসবরাজ বারিকির সঙ্গে। চারজনের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল কল্পনার। আর স্বামীকে খুন করার পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে কল্পনাকে হতাশ করেননি কেউই। রাজস্থানের সুরেশ কুমার, মারওগাঁও-এর পঙ্কজ পাওয়ার, কুর্চোরেমের আব্দুল শেখ ও আদিত্য গুজ্জরের সাহায্যে স্বামীকে খুন করেন কল্পনা।

    এরপর প্রমাণ লোপাট করতে তিন টুকরোয় কেটে ফেলা হয় মৃতদেহ। গোয়া-কর্নাটক সীমান্তের আনমোদ ঘাটের তিনটি আলাদা আলাদা জায়গায় ফেলে দেওয়া হয়। যেহেতু ওই দম্পতির পরিবারের আর কোনও সদস্যই গোয়ায় থাকেন না তাই বাসবরাজের হঠাত্ নিরুদ্দেশ হওয়ার কথা জানতে পারেননি কেউই। মৃতদেহের টুকরো উদ্ধার হওয়ার পর তদন্তে নেমে কল্পনা, পঙ্কজ, আব্দুল, সুরেশকে গ্রেফতার করেছে কুর্চেরোম পুলিশ।

    জানা গিয়েছে উত্তর গোয়ায় ট্যাক্সি ড্রাইভারের কাজ করতেন বাসবরাজ। দুসপ্তাহ অন্তর বাড়ি আসতেন তিনি। এই সময়ই ওই চারজনের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক চালাতেন স্ত্রী। সেই কারণেই ঝগড়া লেগে থাকতো দুজনের মধ্যে। গত পয়লা এপ্রিল ঝগড়ার পর ঠান্ডা মাথায় স্বামীকে খুনের পরিকল্পনা করেন কল্পনা। নিজের ফ্ল্যাটেই ডেকে নেন চার প্রেমিককে। নিজেই স্বামীকে দড়ির সাহায্যে চেপে ধরে স্বাসরোধ করেন কল্পনা। গুজ্জর চেপে ধরেন পা। বাসবরাজের মৃত্যু হলে বাকি দুজনের সাহায্যে তিন টুকরোয় কেটে ফেলা হয় দেহ। তারপর ফেলে দেওয়া হয় বিভিন্ন জায়গায়।
    First published:

    Tags: Extra Marital Affair, Goa, Murder

    পরবর্তী খবর