মঙ্গলবার ফের পঞ্চায়েত মামলার শুনানি সুপ্রিম কোর্টে

Photo Credit : PTI

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: নির্বাচন কমিশনের সওয়ালে সন্তুষ্ট হয়নি সর্বোচ্চ আদালত ৷ সেই কারণে ফের পিছিয়ে গেল পঞ্চায়েত মামলার শুনানী ৷ আগামীকাল সুপ্রিম কোর্টে পঞ্চায়েত মামলার শুনানি হবে ফের ।

    আজ প্রধান বিচারপতির বেঞ্চে শুনানি হয় । পঞ্চায়েতের ১৬ হাজার আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় কি আদৌ স্বাভাবিক ? কমিশনের আইনজীবীকে এদিন প্রশ্ন করে আদালত ।

    শীর্ষ আদালতের প্রশ্নের জবাবে কমিশন জানায়, ৫০ হাজার আসনের মধ্যে ৩৩ শতাংশ আসনে জয়ে কোনও অস্বাভাবিকত্ব তারা খুঁজে পাচ্ছে না । কারণ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ের নজির অন্য রাজ্যেই রয়েছে ৷ পশ্চিমবঙ্গে এই প্রথম নয় ৷ এই বিষয়ে হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, সিকিমেও বিনা লড়াইয়ের উদাহরণ দেখান কমিশনের আইনজীবী । সেখানে ৫০ শতাংশের বেশি আসনে জয়ের নজির আদালতে পেশ করে কমিশন । এর পাশাপাশি রাজ্য নির্বাচন কমিশন জানায়, কোনও প্রার্থী ব্যক্তিগতভাবে অভিযোগ দায়ের করেনি ৷ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতেই এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ৷ রাজ্যের তরফে শুনানিতে জানানো হয়, বিজেপি ও সিপিএমের নির্বাচন খারিজের যে আবেদন তা আদালত গ্রাহ্য নয় ।

    এরপরই শীর্ষ আদালতের বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় জানায়, কোনও ব্যক্তি ব্যক্তিগতভাবে অভিযোগ জানায়নি ঠিকই ৷ হয়তো তা ব্যক্তিগত কারণে ভয় পাওয়ার জন্য ৷ কারণ পঞ্চায়েত ভোট শুরুর আগে থেকেই সমস্যা শুরু হয় ৷ এমনকী, প্রার্থীদের মনোনয়ন পেশ করতেও দেওয়া হয়নি ৷ সেই সমস্ত বিষয়গুলি কি খতিয়ে দেখেছে নির্বাচন কমিশন ? এই নিয়েও এদিন কমিশনের আইনজীবীকে প্রশ্ন তোলে আদালত ৷

    গত সোমবার আদালত জানায়, ১৩ অগাস্ট পর্যন্ত মুলতুবি থাকল পঞ্চায়েত ভোট মামলা ৷ পঞ্চায়েত ভোটের জট ছাড়াতে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল বিরোধীরা ৷ এক তৃতীয়াংশ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় নিয়েই মামলা হয় সু্প্রিম কোর্টে ৷

    এবারে পঞ্চায়েত ভোটে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী রেকর্ড সংখ্যক প্রার্থী ৷ কমিশনের দেওয়া হিসেব অনুযায়ী ৩৪ শতাংশ প্রার্থী জয়ী বিনা ভোটে ৷ উল্লেখ্য, সবাই শাসক দলের ৷ এই বিষয় নিয়েই শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয় বিরোধী দলগুলি ৷ তাদের অভিযোগ ছিল, শাসক দলের হিংসা ও জোর জুলুমের কারণেই ওই আসনগুলিতে প্রার্থী দেওয়া সম্ভব হয়নি ৷

    এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে সারা রাজ্যের পঞ্চায়েত সমিতির মোট ৯২১৭টি আসনের মধ্যেও বিনাযুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেস জিতেছে ৩০৫৯টি ৷ গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট ৪৮,৬৫০টি আসনের মধ্যে ১৬,৮১৪টিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী শাসক দল। এছাড়া জেলা পরিষদের মোট ৮২৫টি আসনের মধ্যে ২০৩টি আসনে জিতেছে শাসকেরা। তৃণমূল কংগ্রেস ছাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতে একটি আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেতার দলে আছে এক নির্দল প্রার্থীও ৷

    আরও পড়ুন: পলিটব্যুরো না জানালেও সোমনাথকে ‘কমরেড’ আখ্যা দিয়ে সম্মান জানাল রাজ্য কমিটি

    First published: