Home /News /national /
Twitter Hacking: এবার টার্গেট নরেন্দ্র মোদি, একের পর এক বিপর্যয় নিয়ে কী বলছে দিশেহারা ট্যুইটার

Twitter Hacking: এবার টার্গেট নরেন্দ্র মোদি, একের পর এক বিপর্যয় নিয়ে কী বলছে দিশেহারা ট্যুইটার

এভাবেই হ্যাকাররা হানাদারি করেছে প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে।

এভাবেই হ্যাকাররা হানাদারি করেছে প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে।

হ্যাকাররা এবার নিশানা করেছে প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইট অ্যাকাউন্ট। সেই অ্যাকাউন্ট থেকে কোভিড মোকাবিলায় অনুদান হিসেবে ক্রিপ্টো কারেন্সি ব্যবহার করার নির্দেশ দেওযা হয়েছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। সমাধান খুঁজতে তদন্ত চালাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়া নিয়ে এমনই বিবৃতি দিল ট্যুইটার।

    হ্যাকাররা এবার নিশানা করেছে প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইট অ্যাকাউন্ট। সেই অ্যাকাউন্ট থেকে কোভিড মোকাবিলায় অনুদান হিসেবে ক্রিপ্টো কারেন্সি ব্যবহার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘটনাটি নজরে আসতেই নড়চড়ে বসেছে ট্যুইটার।

    এদিন ট্যুইটারের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়, "আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত। হ্যাক হয়ে যাওয়া অ্যাকাউন্টটিকে সুরক্ষিত করতে আমরা পদক্ষেপ নিচ্ছি। আমরা তদন্ত করছি বিষয়টার সমাধানসূত্র খুঁজতে। এবার আর অন্য কোনও অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে কিনা সেই বিষয়টা এখনও আমরা জানি না।"

    জুলাই মাসের ১৬ তারিখ হ্যাকাররা তাণ্ডব চালায় ট্যুইটারে। মার্কিন সেলিব্রিটি, শিল্পপতিদের নিশানা করে তাঁরা। সাইবার বিশেষজ্ঞরা জানিয়ে দেন এত বড় মাপের হ্যাকিং এর আগে হয়নি। একে একে প্রেসিডেন্ট পদপার্থী জো বাইডেন, প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, সঙ্গীতশিল্পী কেনে ওয়েস্ট, শিল্পপতি বিল গেটস, মাইক ব্লুমবার্গের মতো ব্যক্তিত্বদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে নেওয়া হয়। এদের সকলের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকেই একই বার্তা দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়, "করোনা মোকাবিলায় আমি সামাজিক কাজ করতে চাই। আমায় আপনারা ১ হাজার বিটকয়েন দিলে আমি ২ হাজার বিট কয়েন দেব।"

    কোথায় টাকা পাঠাতে হবে সেই ঠিকানাও দিয়ে দেন হ্যাকাররা। দীর্ঘক্ষণ কিছুতেই ডিলিট করা যায়নি সে সব ট্যুইট। ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে উদ্বেগপ্রকাশ করে ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ। সাইবার বিশেষজ্ঞরা মনে করছিলেন, এতে ট্যুইটারের ভাবমূর্তি এতে নষ্ট হতে পারে। একই সঙ্গে ভয় ছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রভাবশালী অন্য ব্যক্তিদের অ্যাকাউন্টে হানার।

     সেই ভয়ই সত্যি হল। এবার হানাদারির কবলে স্বয়ং নরেন্দ্র মোদির ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট। এবারও নেপথ্যে সেই বিটকয়েন।নরেন্দ্র মোদির ওয়েবসাইটের সঙ্গে সংযুক্ত এই অ্যাকাউন্টটির ফলোয়ারের সংখ্যা ২ মিলিয়নেরও বেশি। সেই সুযোগকেই কাজে লাগাতে চাইছিল হ্যাকাররা। এই ঘটনায় ট্যুইটারের ভাবমূর্তিতে যে এটা বিরাট আঘাত তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    Tags: Narendra Modi

    পরবর্তী খবর