• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • VIROLOGIST SAID THAT THE SECOND WAVE OF COVID 19 MAY CONTINUE TILL THE END OF MAY SWD

Covid-19: কতদিন থাকবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কোথায় পৌঁছতে পারে? জানাচ্ছেন চিকিৎসক

কতদিন থাকবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কোথায় পৌঁছতে পারে? জানাচ্ছেন চিকিৎসক

প্রথম ঢেউয়ের থেকে কিছুদিনের জন্য স্বস্তি মিললেও জাঁকিয়ে বসেছে করোনার এই নতুন ঢেউ। আর তাই সবারই এক প্রশ্ন কবে কমবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের (Second wave) প্রকোপ।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ফের জেরবার মানুষ। বিভিন্ন রাজ্যে ফের নতুন করে করোনা (Coronavirus) থাবা বসাচ্ছে। প্রথম ঢেউয়ের থেকে কিছুদিনের জন্য স্বস্তি মিললেও জাঁকিয়ে বসেছে করোনার এই নতুন ঢেউ। আর তাই সবারই এক প্রশ্ন কবে কমবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের (Second wave) প্রকোপ। বিশিষ্ট ভাইরোলজিস্ট ডক্টর শাহিদ জামিল এই বিষয়ে কথা বলেছেন CNN-News18-এর কাছে।

    করোনার এই দ্বিতীয় ঢেউ চলতে পারে মে মাসের শেষ পর্যন্ত। জানিয়েছেন চিকিৎসক। দ্বিতীয় ঢেউয়ে মানুষ অনেক দ্রুত সংক্রমিত হচ্ছে। তাই ভাইরোলজিস্ট জানিয়েছেন, দ্বিতীয় ঢেউ যতদিন চলবে দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছুঁতে পারে ৩ লক্ষ। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে আক্রান্ত হয়েছে ১,৮৪,৩৭২ জন যা নতুন করে রেকর্ড তৈরি করছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। ভারতে এই মুহূর্তে সক্রিয় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ১.৩৮ কোটি। মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে।

    ডক্টর শাহিদ জামিল বলছেন, যেভাবে প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তা সত্যিই চিন্তার। প্রতিদিন ৭ শতাংশ করে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। বৃদ্ধির এই হার বেশ আশঙ্কাজনক। এরকম চলতে থাকলে প্রতিদিন ৩ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হতে পারে।

    সারা বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা অনুযায়ী দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। এর আগে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ভারতের পরেই রয়েছে ব্রাজিল। ভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন এই সমস্যা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। তবে চিকিৎসক বলছেন, এই নতুন স্ট্রেইন দ্রুত সংক্রমণ হলেও এটি আগের চেয়ে বেশি ভয়ানক নয়। তবে যে হারে সংক্রমণ বাড়ছে এই দ্বিতীয় ঢেউ মে মাসের শেষ পর্যন্ত থাকতে পারে বলে জানাচ্ছেন তিনি।

    ভারতের মধ্যে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি করোনা বিধ্বস্ত হলো মহারাষ্ট্র। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৬০ হাজার মানুষ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২৮১ জন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: