Viral : হাতি তেড়ে আসছে গাড়ির সামনে, সওয়ারি বলছেন 'কুছ নেহি হোগা!' কিন্তু...

Viral : হাতি তেড়ে আসছে গাড়ির সামনে, সওয়ারি বলছেন 'কুছ নেহি হোগা!' কিন্তু...

তবে এই বলার মুহূর্তের মধ্যেই হাতি আরও দ্রুত তাঁদের দিকে তেড়ে আসে এবং সকলে চিৎকার করেন, দৌড়, দৌড়!

তবে এই বলার মুহূর্তের মধ্যেই হাতি আরও দ্রুত তাঁদের দিকে তেড়ে আসে এবং সকলে চিৎকার করেন, দৌড়, দৌড়!

  • Share this:

    #গুয়াহাটি: হাতি আসছে তেড়ে! গাড়ির সামনে সেই হাতিকে দেখে চমকে উঠছেন সওয়ারিরা৷ সকলেই বলছেন কুছ নেহি হোগা অর্থাৎ কিছু হবে না৷ এভাবেই একে অপরের মনের জোর বাড়াচ্ছেন৷ ক্রমশ গাড়ির দিকে ধেয়ে আসছে হাতি এবং ড্রাইভার পিছিয়ে নিচ্ছেন গাড়ি৷ রিভার্স গিয়ারে বেশ গতিতেই গাড়ি পিছিয়ে দিচ্ছেন চালক৷ তবে হাতিও বড় বড় পা ফেলে আসছে তেড়ে! ভয়ে প্রাণ কাঁপছে সকলের৷ কিন্তু সব ঠিক হবে, এই বিশ্বাস নিয়েই চলছেন তাঁরা৷ এই ভিডিওতে শোনা গিয়েছেন মহিলা যাত্রীদের কণ্ঠ৷ তাঁরা বলছেন যে, কিছু হবে না, এবং চালকও তাঁদের সঙ্গে সহমত হয়েছেন৷ তবে এই বলার মুহূর্তের মধ্যেই হাতি আরও দ্রুত তাঁদের দিকে তেড়ে আসে এবং সকলে চিৎকার করেন, 'দৌড়, দৌড়'!

    আরও পড়ুন মেয়ের জন্য পুতুল কিনেছিলেন দম্পতি, ভিতর থেকে যা বেরোল! তাতে চোখ কপালে উঠেছে!

    এই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন আইএফএস অফিসার সুরেন্দ্র মেহরা৷ ভিডিওটি শেয়ার করতে গিয়ে তিনি বলেছেন যে, পরিবেশ ও পশুদের প্রতি শ্রদ্ধা থাকা উচিৎ৷ তাদের অকারণে উত্তক্ত্য করা উচিৎ নয়৷ তিনি প্রশ্ন করেন, 'কতবার পশু, বিশেষ করে হাতির মুখোমুখি হয়ে এমন অভিজ্ঞতা হয়েছে আমাদের?' তিনি বলেন যে, 'জঙ্গলে হাতির সামনাসামনি হলে তাদের জায়গা ছেড়ে দেওয়া মানুষের কর্তৃব্য৷ কারণ বন্যেরা বনে সুন্দর, এটা মনে রাখা খুবই জরুরি৷ জঙ্গলে গিয়ে পশু দেখার শখ থাকে, কিন্তু মানুষের এই শখ মেটাতে জঙ্গলের জন্তুদের যেন কোনও সমস্যা না হয়৷ এটা মনে রাখা অত্যন্ত প্রয়োজন,' বলছেন উচ্চপদস্থ সরকারি অফিসার৷

    তাই যতই মনে করা হোক কিছু হবে না, অঘটন ঘটে যেতেই পারে৷ সর্বদা সাবধানে থাকুন৷ এমনকী জন্তুদের অকারণে বিরক্ত করাও একেবারে ঠিক নয়৷

    ভিডিওটি শেয়ার করার পরপর, তা ছড়িয়ে পড়ে৷ ভাইরাল হয়ে যায়৷ প্রায় সাড়ে ৬ হাজার নেটিজেন এই ভিডিওটি দেখেছেন৷ গাড়ির সওয়ারিদের নির্বুদ্ধিতার নিন্দে করেছেন সকলেই৷ 'পশুকে সম্মান করুন', এই বক্তব্যই উঠে এসেছে এই ভিডিওটি দেখে৷

    Published by:Pooja Basu
    First published:

    লেটেস্ট খবর