দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

ডাইনি অপবাদ দিয়ে অসমে এক প্রৌঢ়ার গলা কেটে উৎসর্গ, চলল পুজো, প্রার্থনা

ডাইনি অপবাদ দিয়ে অসমে এক প্রৌঢ়ার গলা কেটে উৎসর্গ, চলল পুজো, প্রার্থনা
So far, the police have arrested nine people in connection to the case while search is on to nab others

কী হয়েছিল ঘটনার দিন?‌ পুলিশ জানিয়েছে, মৃতার নাম রমাবতী হালুয়া। তিনি ঘটনার সময় বাড়িতেই ছিলেন।

  • Share this:

#‌ডিব্রুগড়: দেশের নারী নিরাপত্তা যে বারবার প্রশ্নের সামনে পড়ছে, সেটা একের পর এক ঘটনায় ক্রমে স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। যেমনটা ঘটেছে অসমে। অসমের একটি গ্রামে ৫০ বছর বয়সের এক প্রৌঢ়াকে গলা কেটে খুন করেছে স্থানীয়রা। ‘‌বিধবা মহিলা আসলে ডাইনি‌, অন্য এক মহিলার মৃত্যুর জন্য তিনি দায়ী’‌, এই অভিযোহে গলা কেটে খুন করা হল তাঁকে। পাশাপাশি ঘটনার প্রতিবাদ করেছিলেন ২৮ বছরের এক তরুণ শিক্ষক। তিনি বলেছিলেন, এভাবে সুসংস্কারের বশে হত্যাকাণ্ড ঘটানো দণ্ডনীয় অপরাধ। তাই তাঁকেও গলা কেটে মেরে দিলেন স্থানীয় কয়েকজন। গোটা ঘটনার আকস্মিকতায় স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছে পুলিশ, প্রশাসন। দোকমা থানার অন্তর্গত রহিমপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে।

কী হয়েছিল ঘটনার দিন?‌ পুলিশ জানিয়েছে, মৃতার নাম রমাবতী হালুয়া। তিনি ঘটনার সময় বাড়িতেই ছিলেন। তখনই হঠাৎ করে কয়েকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাঁর বাড়িতে চড়াও হয়। গোটা ঘটনার প্রতিবাদ করতে এগিয়ে আসেন এখন স্থানীয় তরুণ শিক্ষক। তারপর দু’‌জনকেই নৃশংস ভাবে হত্যা করে দুষ্কৃতীরা। তারপর দু’‌জনের মাথা কেটে শয়তানের উদ্দেশ্য উৎসর্গ করে তাঁরা, চলে প্রার্থনা। তারপর নদীর ধারে দেহ নিয়ে গিয়ে পাহাড়ের দিকে ফেলে দেওয়া হয়ে। দুষ্কৃতীরা রমাবতীর কন্যা সন্তানকেও মারতে উদ্যত হয়েছিল, কিন্তু সে কোনওমতে পালিয়ে বাঁচে এবং দোমকা থানায় অভিযোহ জানায়। সেখানে সে তাঁর বয়ানও রেকর্ড করেছে। পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে খুনের অস্ত্র ও দেহাংশ উদ্ধার করে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এখনও পর্যন্ত ন’‌জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশকে গ্রামের মানুষ জানিয়েছেন, রমাবতী ডাইনি। সে নানা মহিলার উপর ভর করে তাঁদের নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে, এবং সে মতো তাঁদের ব্যবহার করাতে পারে। একজন মহিলা জানিয়েছেন, মৃত্যুর পরেও রমাবতীর নাম নিলে তাঁর আত্মা ভর করবে বলে তিনি নাম নিতে পারবেন না।

এই একই থানার অন্তর্গত এলাকায় এই একই ঘটনা ঘটেছিল দু’‌বছর আগে। সেখানে শিশু চোর সন্দেহে দুই বাঙালি পর্যটককে পিটিয়ে মারে উত্তেজিত জনতা। দু’‌জনেই প্রচণ্ড মারের চোটে প্রাণ হারায়। এই ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। যদিও, ঘটনায় জড়িত দোষীদের এখনও কোনও সাজা হয়নি।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: October 2, 2020, 4:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर