• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল ২০০০ বছরেরও পুরনো মুদ্রা! গুপ্তধনের সন্ধান উত্তরপ্রদেশে

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল ২০০০ বছরেরও পুরনো মুদ্রা! গুপ্তধনের সন্ধান উত্তরপ্রদেশে

Image for representation

Image for representation

গ্রামবাসীদের থেকে খবর পেয়েই সেই দুস্প্রাপ্য জিনিসগুলিকে নিজেদের জিম্মায় রেখেছে পুলিশ৷ প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদফতরকে খবর দিয়েছে তারা ৷ খননকার্যের পুরো এলাকা প্রশাসনের নজরদারিতে রয়েছে ৷

  • Share this:

    #লখনউ: এক-দু'টো নয়, মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল ১২৮টি মুদ্রা ৷ যেগুলির আনুমানিক বয়স প্রায় ১৫০০-২০০০ বছর পুরনো ৷ গত শনিবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার সাক্ষী থাকল উত্তরপ্রদেশের মহম্মদাবাদ গহনা তেহসিল গ্রাম৷ শুধুই মুদ্রা নয়, গ্রামবাসীরা মাটি খুঁড়ে পেয়েছেন পুরনো মূর্তি এবং বেশ কিছু বাসনপত্র৷ গ্রামবাসীদের থেকে খবর পেয়েই সেই দুস্প্রাপ্য জিনিসগুলিকে নিজেদের জিম্মায় রেখেছে পুলিশ৷ প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদফতরকে খবর দিয়েছে তারা ৷ খননকার্যের পুরো এলাকা প্রশাসনের নজরদারিতে রয়েছে৷

    জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অমিত কুমার বানসল মুদ্রাগুলি দেখে মনে করেছেন যে, এগুলি অন্তত দেড় থেকে দু’হাজার বছরের পুরনো ৷ এই প্রথমবার নয়, উত্তরপ্রদেশ থেকে এর আগেও একাধিক প্রাচীন নিদর্শন পাওয়া গিয়েছে। কিছু দিন আগেই সিন্ধু-জাহাজের ধ্বংসাবশেষ মিলেছিল। যেগুলি দেখে মনে করা হয়েছিল আগেরকার দিনের মানুষ জনের খাদ্যাভাস ছিল রাজকীয়। এর ভিত্তিতে প্রত্নতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিষয়ক একটি জার্নালে প্রকাশ করা হয়৷ যেখানে বলা হয়েছে অতীতে ব্যবহারের সময় প্রাচীন সিরামিক জাহাজের সঙ্গে চর্বি এবং তেল নিষ্কাশন ও সনাক্তকরণও জড়িত। এই বিশ্লেষণের ভিত্তিতে লন্ডনের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলেছেন, অতীতে পাত্রগুলি কীভাবে ব্যবহার করা হত এবং সেগুলিতে কী ধরনের রান্না করা হত তার একটি বিবরণ দেওয়া হয়েছিল।

    ২০১৯ সালে, আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া (এএসআই) উত্তরপ্রদেশের সিনোলিতে প্রায় ৪০০০ বছরের বেশি পুরনো এক সমাধিস্থল খুঁজে পায়। এক এএসআই কর্মী এবং প্রত্নতাত্ত্বিকদের একটি দল বাগপত জেলায় অবস্থিত ওই সমাধিক্ষেত্রে উদ্ধারকার্য চালায়৷ সেখান থেকে একটি পায়াযুক্ত কফিন পাওয়া গিয়েছে, যার মধ্যে কঙ্কালের কিছু অংশও ছিল। এ ছাড়াও হেলমেট, রথ, ঢাল এবং অন্যান্য মূল্যবান জিনিস মিলেছে। ভারতীয় উপমহাদেশে ২০১৯ সালকে প্রথম ব্রোঞ্জ যুগের খননকাল হিসাবে চিহ্ণিত করা হয়৷

    Published by:Somosree Das
    First published: