corona virus btn
corona virus btn
Loading

গ্রামে ঢুকে পড়েছে কুমির! বনকর্মীদের হাতে দেওয়ার আগে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি গ্রামবাসীদের

গ্রামে ঢুকে পড়েছে কুমির! বনকর্মীদের হাতে দেওয়ার আগে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি গ্রামবাসীদের
উত্তরপ্রদেশের গ্রামে কুমিরের মুক্তিপণ দাবি-- AFP

গ্রামবাসীরা দাবি করে বসেন, কুমিরটির বিনিময়ে তাদের ৫০ হাজার টাকা দিতে হবে। টাকা দিলে তবেই কুমিরটিকে তারা বন দফতরের হাতে তুলে দেবে।

  • Share this:

এও এক 'কুম্ভির বিভ্রাট!' একটি কুমিরকে ঘিরে উত্তাল উত্তরপ্রদেশের প্রত্যন্ত গ্রাম মিদানিয়া। কিন্তু বন্যপ্রাণীটিও হয়তো ভাবতে পারেনি তার মূল্য এত বেশি হতে পারে। ঘুরিয়ে বললে, কুমিরটি আপাতত গ্রামবাসীদের হাতে কিডন্যাপড!

সংরক্ষিত অরণ্যের লাগোয়া গ্রাম মিদানিয়া। সেই গ্রামেরই একটি পুকুরে দেখা যায় একটি কুমির ওঁত পেতে বসে আছে। মুহূর্তের মধ্যে ভিড় জমে যায় কুমিরটিকে দেখার জন্য। গ্রামবাসীরাই মিলিতভাবে কুমিরটিকে ধরেন। এরপর বনকর্মীরা আসেন কুমিরটিকে উদ্ধার করতে। এই বারেই শুরু অশান্তি৷ গ্রামবাসীরা দাবি করে বসেন, কুমিরটির বিনিময়ে তাদের ৫০ হাজার টাকা দিতে হবে। টাকা দিলে তবেই কুমিরটিকে তারা বন দফতরের হাতে তুলে দেবে।

নিকটবর্তী দুধাওয়া ব্যাঘ্র সংরকক্ষণ প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা স্থানীয় বনবিভাগের আধিকারিক অনিল প্যাটেল জানান, স্থানীয়রা কুমিরটিকে ধরে৷ বন দফতর উদ্ধার করতে গেলে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে বসে। এরপর বনকর্মীদের বেশ কয়েক ঘণ্টা কেটে যায় গ্রামবাসীদের বোঝাতে। ডাকতে হয় স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে। স্থানীয় পুলিশ ও কর্তৃপক্ষের মধ্যস্থতায় কুমিরটিকে শেষপর্যন্ত উদ্ধার করা যায়।

একসময় গ্রামবাসীদের আইনি পদক্ষেপের ভয় দেখিয়ে বলা হয়, এই অপরাধের জন্য তাদের ৭ বছর পর্যন্ত হাজতবাস হতে পারে। অনিল প্যাটেলের কথায়, 'গ্রামবাসীদের আসলে ধারণাই নেই যে বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী কুমির একটি সংরক্ষিত বন্যপ্রাণী। আমাদেরই উচিত বন্যপ্রাণ সম্পর্কে তাদের সচেতন করে তোলা।'

উদ্ধারের পর 8 ফুট দৈর্ঘ্যের কুমিরটিকে ওই দিনই ঘাগরা নদীতে ছেড়ে দেওয়া হয়। বনকর্মীদের মতে, গত মঙ্গলবার ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে যে বন্যা হয়, তার জন্য সংরক্ষিত অঞ্চল থেকে কুমিরটি গ্রামে ঢুকে পড়ে। কিছুদিন আগে মধ্যপ্রদেশের শিবপুরী এলাকায় জাতীয় সড়কের ওপর একটি ১০ ফুট লম্বা কুমিরকে দেখা যায়। স্থানীয় বাসিন্দারা কুমিরটি দেখতে পান ও পরে বনবিভাগ কুমিরটিকে উদ্ধার করে একটি পুকুরে ছেড়ে দেয়। ট্যুইটারের মাইক্রোব্লগিং সাইটে শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কুমিরটি ঝোপ থেকে বেরিয়ে এসে রাস্তা পার হচ্ছিল।

আরেকটি ঘটনায় জানা যাচ্ছে, সম্প্রতি বন্যপ্রাণ বিভাগের রেঞ্জাররা একটি ১৪.৫ ফুট লম্বা নোনা জলের কুমিরকে ধরেছিল। ঘটনাটি অস্ট্রেলিয়ার উত্তর অঞ্চলের একটি পর্যটনস্থলে। একজন রেঞ্জার সোমবার বলেন, এই অঞ্চলে এবছর এটাই সবচেয়ে বড় কুমির ধরার ঘটনা।

Published by: Arindam Gupta
First published: September 12, 2020, 4:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर