• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Lakhimpur Kheri Incident: লখিমপুর কাণ্ডের তদন্তে তিন আইপিএস, নজরদারি চালাবেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি

Lakhimpur Kheri Incident: লখিমপুর কাণ্ডের তদন্তে তিন আইপিএস, নজরদারি চালাবেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি

লখিমপুর খেরির ঘটনার তদন্তে তিন আইপিএস৷

লখিমপুর খেরির ঘটনার তদন্তে তিন আইপিএস৷

তদন্তে নজরদারি চালাবেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি রাকেশ কুমার জৈনকে নিযুক্ত করেছে শীর্ষ আদালত। উত্তর প্রদেশ সরকারের গঠিত বিশেষ তদন্তকারী দলে (‌‌সিট)‌‌ ৩ জন সিনিয়র আইপিএস নিযুক্ত করেছে। তারা হলেন শিরোডকার, প্রীতিন্দর সিং এবং পদ্মজা চৌহান।

  • Share this:

#দিল্লি: ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। লখিমপুর খেরি কাণ্ডের তদন্তে নজরদারি চালাতে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি নিয়োগ করল আদালত (Lakhimpur Kheri Violence)। পঞ্জাব-‌হরিয়ানা হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি রাকেশ কুমার জৈনকে নিযুক্ত করেছে শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। একই সঙ্গে উত্তর প্রদেশ সরকারের গঠিত বিশেষ তদন্তকারী দলে (‌‌সিট)‌‌ ৩ জন সিনিয়র আইপিএস নিযুক্ত করেছে।

তাঁরা হলেন এস বি শিরোদকার, প্রীতিন্দর সিং এবং পদ্মজা চৌহান। আদালত জানিয়েছে, লখিমপুর খেরি কাণ্ডের চার্জশিট দাখিল হওয়ার পরই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে।  গত শুনানিতে আদালত উত্তর প্রদেশ সরকারের কাছে আইপিএস আধিকারিকের নাম জানানোর নির্দেশ দিয়েছিল। যাঁরা উত্তরপ্রদেশ ক্যাডারের হলেও স্থানীয় নন।

এ দিন লখিমপুর খেরি কাণ্ডের তদন্তের গতি বাড়াতে আরও তিন আইপিএস নিযুক্ত করল সুপ্রিম কোর্ট। গত ৩ অক্টোবরের লখিমপুর খেরির ঘটনার তদন্ত নজরদারির জন্য একজন প্রাক্তন হাইকোর্টের বিচারপতিকে নিয়োগ করতে সম্মত হওয়ার দু’‌ দিন পরে রাকেশ কুমার জৈনকে নিযুক্ত করা হল।  উত্তর প্রদেশ সরকারের গঠন করা তদন্তকারী দলের ‘‌আপগ্রেড’ -এর প্রয়োজন বলে মনে করে শীর্ষ আদালত।

আরও পড়ুন: 'কৃষকদের দোষারোপ নয়', দেশের রাজধানী 'বাঁচাতে' সুপ্রিম কোর্টের বড় পর্যবেক্ষণ

গত শুনানিতে উত্তরপ্রদেশ সরকারের কৌঁসুলি হরিশ সালভে আদালতে জানিয়েছিলেন, রাজ্য বা রাজ্যের বাইরের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নিয়োগ নিয়ে তাদের কোনও আপত্তি নেই। সুপ্রিম কোর্ট একজন ব্যক্তিকে তদন্তের নজরদারির দায়িত্ব দিচ্ছে, এটাই বড় বিষয়। প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ বলেছে, বিশেষ তদন্তকারী দল (‌‌সিট)‌‌ শক্তিশালী করা জরুরি। উল্লেখ্য, এর আগের শুনানিতে লখিমপুর কাণ্ডের তদন্তের গতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন প্রধান বিচারপতি। প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ মন্তব্য করেছিল, 'যতটা আশা করেছিলাম, কাজ সেভাবে এগোচ্ছে না।'

উল্লেখ্য, গত ৩ অক্টোবর উত্তর প্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষকদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চলাকালীন গাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে ৪ জন কৃষকের মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় আরও ৪ জন-সহ মোট ৮ জনের মৃত্যু হয়। কৃষক হত্যার ঘটনায় অভিযোগের তির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী অজয় মিশ্র ও তাঁর পুত্র আশিস মিশ্রের বিরুদ্ধে । আশিস মিশ্রকে লখিমপুর কাণ্ডের প্রধান অভিযুক্ত করা হয়েছে। আশিস সহ আরও ১২ জনকে এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে লখিমপুর মামলার শুনানিতে আদালতের পর্যবেক্ষণে বলে, এই ঘটনা নিয়ে পরপর যে দু’টি এফআইআর হয়েছে, মনে হচ্ছে তা প্রধান অভিযুক্তকে রক্ষা করতেই করা হয়েছে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published: