• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • UP SYLLABUS TAGORE RADHAKRISHNAN EXCLUDED ADDING RAMDEV AND YOGI TMC STRONGLY CRITICIZED SANJ

UP Syllabus Controversy : রবীন্দ্রনাথকে বাদ দিয়ে বাবা রামদেব, এরপর কি আশারাম বাপু? প্রশ্ন তুলল তৃণমূল

বাদ পড়লেন রবীন্দ্রনাথ

পাঠ্যসূচীকে(UP Syllabus) কেন্দ্র করে আবার সংবাদ শিরোনামে যোগী আদিত্যনাথের(Yogi Adityanath) উত্তরপ্রদেশ(Uttar Pradesh)। এবার কোপ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরে(Rabindranath Tagore)।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি : উত্তরপ্রদেশ শিক্ষা পর্ষদের দ্বাদশ শ্রেণীর পাঠ্যসূচি (UP Syllabus) থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের (Rabindra Nath Tagore) ছুটি গল্পের ইংরেজি অনুবাদ বাদ দেওয়ার ঘটনায় যোগী সরকারকে একহাত নিয়েছেন তৃণমূল নেতা শুখেন্দুশেখর রায় (Sukhendu Sekhar Roy)। তিনি বলেছেন, "বিশ্ববরেণ্য কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের(Rabindra Nath Tagore)  রচনা সিলেবাস (UP Syllabus) থেকে যারা বাদ দিয়েছেন তারা তো ইতিহাস বদলে দিতে চান। রবীন্দ্রনাথকে বাদ দিয়ে রামদেবের বই পড়ানো হচ্ছে। আমাদের স্বাভাবিক প্রশ্ন, যোগী আদিত্যনাথের সরকার কি এরপর আশারাম বাপুর বই পড়াবে?"

পাঠ্যসূচীকে(UP Syllabus) কেন্দ্র করে আবার সংবাদ শিরোনামে যোগী আদিত্যনাথের(Yogi Adityanath) উত্তরপ্রদেশ(Uttar Pradesh)। এবার কোপ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরে(Rabindranath Tagore)। সিলেবাস থেকে বাদ পরল রবীন্দ্রনাথের গল্প।ঢুকল রামদেব আর যোগীর লেখা বই। চলতি বছর থেকে দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণিতে ইংরেজি বিষয়ে এনসিইআরটি-র সিলেবাস চালু করেছে যোগী সরকার। আর তাতেই উত্তরপ্রদেশ শিক্ষা পর্ষদের দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্যসূচি থেকে বাদ পড়ল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ছুটি’ গল্পটি।  ‘ছুটি’ গল্পের ইংরেজি অনুবাদ ‘দ্য হোম কামিং’(The home coming) পাঠ্যসূচি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তবে, শুধু রবীন্দ্রনাথ নয়, যোগী আদিত্যনাথ এর রাজ্য দ্বাদশ ও দশম শ্রেণির পাঠ্যসূচি থেকে রাধাকৃষ্ণণের লেখাও বাদ পড়েছে। দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি সর্বপল্লি রাধাকৃষ্ণণের প্রবন্ধ ‘দ্য উইমেনস এডুকেশন’-ও(The Women's Education)বাদ পড়েছে। দশম শ্রেণির পাঠ্যসূচি থেকে বাদ গিয়েছে সরোজিনী নাইডুর কবিতা ‘দ্য ভিলেজ সং’ এবং রাজাগোপালাচারির রচনা। দ্বাদশ শ্রেণির ইংরেজির সিলেবাস থেকে বাদ পড়েছে আর কে নারায়ণের গল্প ‘অ্যান অ্যাস্ট্রোলজার্স ডে’, মুকুল আনন্দের ‘দ্য লস্ট চাইল্ড’। শেলির কবিতাও পড়ানো হবে না উত্তরপ্রদেশের দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের।

এদিকে, কিছু দিন আগেই উত্তরপ্রদেশ সরকারের সুপারিশ মেনে নিয়ে রাজ্য শিক্ষা পর্ষদ চৌধুরি চরণ সিং বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শন বিভাগের পাঠ্যক্রমে রামদেবের বই ‘যোগ চিকিৎসা রহস্য’ এবং যোগী আদিত্যনাথের ‘হঠযোগ স্বরূপ এবং সাধনা’ অন্তর্ভুক্ত করেছে। স্বভাবতই এ নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছে শিক্ষা মহল। শুরু হয়েছে বিতর্ক।

গোটা ঘটনায় বাংলার অপমান হয়েছে বলে অনেকে মত প্রকাশ করলেও তৃণমূল কংগ্রেসের এক প্রবীণ সাংসদের কথায়, "রবীন্দ্রনাথের রচনা পাঠ্যসূচি থেকে বাদ দিলে বাংলা বাঙালির কোন অপমান হয় না। রবীন্দ্রনাথকে অপমান করার ক্ষমতাটুকুও যোগী আদিত্যনাথের নেই। বরং নিজের রাজ্যের ভবিষ্যৎ, ছাত্র সম্প্রদায়ের প্রতি বঞ্চনা করল সরকার। যেটুকু ক্ষতি, তা ওই রাজ্যের পড়ুয়া দেরি হবে।"

তবে, এই ঘটনায় যারপরনাই বিরক্ত শিক্ষাবিদরা। তাঁদের অনেকের প্রশ্ন, "রাজ্য শিক্ষা পর্ষদ যদি এনসিইআরটি-র সিলেবাস গ্রহণ করে, তাতে কারও আপত্তি নেই। কিন্তু যেভাবে রাজ্য সরকার সুপারিশ করে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং যোগগুরু বাবা রামদেবের লেখা বইগুলি পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করেছে ঠিক একইভাবে কেন রবীন্দ্রনাথ, শেলী, সরোজিনী নাইডু এবং সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণদের রচনা অন্তর্ভুক্ত করা হল না?"

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: