স্ত্রীর গলা কেটে, কাটা মুন্ডু হাতে ঝুলিয়ে থানায় হাজির স্বামী, গাইল জাতীয় সঙ্গীতও

স্ত্রীর গলা কেটে, কাটা মুন্ডু হাতে ঝুলিয়ে থানায় হাজির স্বামী, গাইল জাতীয় সঙ্গীতও
representative image

যখন অভিযুক্তর কাছ থেকে কাটা মুণ্ডটা নিয়ে নিতে যায় পুলিশ কর্মীরা, সে জাতীয় সঙ্গীত গাইতে শুরু করে। তার মুখে শোনা যায় 'ভরত মাতা কী জয়' স্লোগানও

  • Share this:

#উত্তরপ্রদেশ: বিভৎস, ভয়াবহ, মর্মান্তিক! স্ত্রীর কাটামুন্ডু হাতে ঝোলাতে ঝোলাতে থানায় পৌঁছল স্বামী ! এখানেই শেষ নয়, পুলিশের সামনে দাঁড়িয়ে গাইল জাতীয় সঙ্গীতও। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বাহাদুরপুর গ্রামে। ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়, ছড়িয়েছে আতঙ্ক।

ব্যক্তির কাণ্ডে পুলিশকর্তাদেরও চোখ কপালে! পুলিশি জেরায় অভিযুক্ত  স্বীকার করেছে, পারিবারিক অশান্তির জেরেই স্ত্রীকে খুন করেছে। তারপর,  ধারাল অস্ত্র দিয়ে কেটে ফেলে গলা। পুলিশ আরও জানান, যখন অভিযুক্তর  কাছ থেকে কাটা মুণ্ডটা নিয়ে নিতে যায় পুলিশ কর্মীরা, সে জাতীয় সঙ্গীত গাইতে শুরু করে। তার মুখে শোনা যায় 'ভরত মাতা কী জয়' স্লোগানও। প্রথমে কিছুতেই স্ত্রীর কাটা মুন্ডু পুলিশের হাতে দিতে চায় না। পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে রীতিমত ধ্বস্তাত্বস্তি বেঁধে যায়। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্তর নাম অখিলেশ রাওয়াত। প্রথমে স্ত্রীকে খুন করে তারপর শরীর থেকে মাথাটি ধারাল কোনও অস্ত্র দিয়ে কেটে ফেলে। পুলিশের এসপি অরবিন্দ চতুর্বেদী জানান, পারিবারিক অশান্তি ও বিবাদের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে। তদন্ত চলছে।

গতবছর মে মাসে এই রাজ্যও একইরকম ঘটনার সাক্ষী হয়। দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমায় এক যুবক স্ত্রীকে গলা কেটে খুন করে, কাটা মুন্ডু ব্যাগে ভরে সোজা হাজির হয় থানায়। অভিজিৎ দাস নামে ওই যুবক আত্মসমর্পন করে জানায়, সে তাঁর স্ত্রীর গলা কেটে খুন করেছেন, এমনকী পিঠে থাকা স্কুল ব্যাগ থেকে কাটা মুন্ডু বের করে পুলিশ অফিসারকে দেখান। পাশাপাশি বলেন, তাকে যেন গ্রেফতার করা হয়। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। পুলিশ আধিকারিকরা ছিন্নভিন্ন অবস্থায় মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

First published: February 4, 2020, 12:03 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर