অবৈধ কসাইখানা নিষিদ্ধ করার পর গত আড়াই বছরে উত্তরপ্রদেশে কোনও দাঙ্গা বা গণপিটুনির ঘটনা ঘটেনি: যোগী আদিত্যনাথ

অবৈধ কসাইখানা নিষিদ্ধ করার পরই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলায় এমন পরিবর্তন বলে দাবি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের ৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 19, 2019 06:45 PM IST
অবৈধ কসাইখানা নিষিদ্ধ করার পর গত আড়াই বছরে উত্তরপ্রদেশে কোনও দাঙ্গা বা গণপিটুনির ঘটনা ঘটেনি: যোগী আদিত্যনাথ
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 19, 2019 06:45 PM IST

#লখনউ: গত আড়াই বছরে উত্তরপ্রদেশে কোনও দাঙ্গা বা গণপিটুনির ঘটনা ঘটেনি ৷ অবৈধ কসাইখানা নিষিদ্ধ করার পরই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলায় এমন পরিবর্তন বলে দাবি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের ৷

News18 নেটওয়ার্ক গ্রুপ এডিটর-ইন-চিফ রাহুল যোশীকে দেওয়া এক এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে উঠে আসে দাঙ্গা ও গণপিটুনির ঘটনার প্রসঙ্গ ৷ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন ছিল গণপিটুনি ও দাঙ্গার পরিস্থিতি হলে তাতে কি রাজ্যের বিনিয়োগের উপর প্রভাব পড়ে? উত্তরে যোগী আদিত্যনাথ বলেন, ‘আগে হয়ত এমন সমস্যা হত, কিন্তু এখন হয় না ৷ গত আড়াই বছরে কোনও দাঙ্গার ঘটনা ঘটেনি ৷ কোনও গণপিটুনির ঘটনাও ঘটেনি ৷ আসলে উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন যেসব কারণে দাঙ্গা বা গণপিটুনির ঘটনা ঘটতে পারে সেইগুলিই শিকড় থেকে উপড়ে ফেলেছে ৷ শুরুতেই আমরা অবৈধ কসাইখানা নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছি ৷’

২০১৭ সালে বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির ম্যানিফেস্টোর এজেন্ডা অনুযায়ী আদিত্যনাথ অবৈধ কসাইখানাকে সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করার নির্দেশ দেন এবং একইসঙ্গে গরু পাচার বন্ধ করতেও লাগানো হয় আংশিক ব্যান ৷

News18-এ এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা মালিকহীন গবাদি পশু নিয়ে একটি ক্যাম্পেন শুরু করেছিলাম ৷ যেটা অনেকটাই সফল হয়েছে ৷ এখন আমাদের রাজ্যে প্রায় ৩.৫ লাখ দাবিহীন গবাদি পশু আছে, যাদের কোনও থাকার আস্তানা নেই ৷ উত্তরপ্রদেশ সরকার একটি স্কিম এনে ঘোষণা করেন, কেউ যদি এই দাবিহীন গবাদি পশুদের মধ্যে কাউকে আশ্রয় দেন তাহলে সরকারের তরফ থেকে তাঁকে মাসে ৯০০ টাকা করে দেওয়া হবে ৷ তবে সেই গরুটিকে প্রতি মাসে নিয়ম করে চেকআপ ও ভ্যাকসিন দেওয়াতে নিয়ে যেতে হবে ৷ সেই পুরো খরচও সরকার বহন করবে ৷’

First published: 06:36:54 PM Sep 19, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर