• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • উত্তরপ্রদেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে কী কী নতুন পদক্ষেপ নিলেন যোগী আদিত্যনাথ ?

উত্তরপ্রদেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে কী কী নতুন পদক্ষেপ নিলেন যোগী আদিত্যনাথ ?

 প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে ‘‌অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড’‌ গঠনের কাজ শুরু করার জন্য উত্তরপ্রদেশের পুলিশকে নির্দেশ দিল আদিত্যনাথের সরকার।

প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে ‘‌অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড’‌ গঠনের কাজ শুরু করার জন্য উত্তরপ্রদেশের পুলিশকে নির্দেশ দিল আদিত্যনাথের সরকার।

প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে ‘‌অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড’‌ গঠনের কাজ শুরু করার জন্য উত্তরপ্রদেশের পুলিশকে নির্দেশ দিল আদিত্যনাথের সরকার।

  • Share this:

    #লখনউ: ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকেই উত্তরপ্রদেশের গুরুদায়িত্ব কার হাতে দেওয়া হবে তা নিয়ে জল্পনা চলছিল। বিজেপির অন্দরেও ছিল ধোঁয়াশা। দৌড়ে ছিল মনোজ সিনহা, কেশবপ্রসাদ মৌর্য এমনকি রাজনাথ সিংয়ের মতো বড় নাম। কিন্তু শেষ ল্যাপে সবাইকে পিছনে ফেলে দিলেন যোগী আদিত্যনাথ। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে গোরক্ষপুরের সাংসদের নামেই সিলমোহর দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ।

    উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী আসনে বসেই সবকা সাথ, সবকা বিকাশের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। কোনও পক্ষপাতিত্ব না করে, রাজ্যকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। মহিলাদের ক্ষমতায়ন, বেকার সমস্যা মেটানো, আইনশঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখার ওপরও জোর দিয়েছিলেন নতুন মুখ্যমন্ত্রী। মনিতে তিনি হিন্দুত্বের মুখ হিসেবেই পরিচিত। তবে মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে বসে, সমাজের সবস্তরের উন্নয়নে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। ২০১০ সালে মহিলা সংরক্ষণ বিলের পক্ষে ভোট দিতে বলায়, দলের হুইপ অমান্য করেছিলেন। এদিন অবশ্য মহিলা ক্ষমতায়ন, তাঁদের সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি শোনা গেল যোগীর মুখে।

    মহিলাদের ইভ-টিজিং ও ধর্ষণের মাত্রা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে রাজ্যে। তাই ভোটের আগে বিজেপি–র প্রতিশ্রুতি ছিল, ক্ষমতায় এলে ইভটিজিং রুখতে বিশেষ বাহিনী গঠন করবে তারা। প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে ‘‌অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড’‌ গঠনের কাজ শুরু করার জন্য উত্তরপ্রদেশের পুলিশকে নির্দেশ দিল আদিত্যনাথের সরকার।

    জানা গিয়েছে, লখনউয়ের আশপাশে ১১টি জেলায় গঠিত হবে এই বাহিনী। এর আগে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ইভটিজিংয়ের শিকার হতে হয়েছে মহিলাদের ৷ এবার ইভটিজিং রুখতে কড়া পদ৭েপ নিতে চলেছ রাজ্য সরকার ৷ নির্দিষ্ট এলাকার সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং রেল স্টেশন, বাস স্টপেজ, শপিং মলের মতো এলাকায় মহিলাদের উত্যক্ত করার ঘটনা রুখতে এবার থেকে থাকবে এই বিশেষ বাহিনী ৷  ।

    এর পাশাপাশি কোপ পড়তে চলেছে মদের দোকানগুলিতেও ৷ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বেআইনি কসাইখানাগুলি ৷ মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর জানিয়েছিলেন, দলের ইশতাহার 'লোক কল্যাণ সংকল্প' অনুযায়ী সব প্রতিশ্রুতি পালন করবে তাঁর সরকার। বিজেপির সেই ইশতাহারে রামমন্দির নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। এবার সেই প্রতিশ্রুতি পূরণের পথেই কী হাঁটছেন যোগী ?

    First published: