কী অসুখ ? রোগীর কুষ্ঠি বিচার করে তা বের করা হয় রাজস্থানের এই হাসপাতালে !

কী অসুখ ? রোগীর কুষ্ঠি বিচার করে তা বের করা হয় রাজস্থানের এই হাসপাতালে !
representative image
  • Share this:

#রাজস্থান: অসুস্থ রোগী, হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে! এরপরের দৃশ্যটা সাধারণত কেমন হয়ে থাকে ? এমার্জেন্সিতে ভর্তি নেওয়া হয়। খুটিয়ে দেখা হয় রোগীর কী কী অসুস্থতা রয়েছে, সেইমতো পরীক্ষা নিরীক্ষা, ওষুধ ...! এ তো গেল চেনা ছবি! কিন্তু এমনও হাসপাতাল রয়েছে যেখানে রোগী পৌঁছাতেই আগে খতিয়ে দেখা হয় রোগীর কুষ্ঠি! তারপরই শুরু হয় যাবতীয় চিকিৎসা।

অবিশ্বাস্য এই চিকিৎসপদ্ধতি দেখা যায় রাজস্থানের জয়পুরে, বৈশালী নগরে ইউনিক সঙ্গীতা মেমোরিয়াল হাসপাতালে। জানা গিয়েছে, চিকিৎসক, নার্সের পাশাপাশি হাসপাতালে রয়েছেন একজন জ্যোতিষী ৷ নাম অখিলেশ শর্মা। যে কোনও রোগী ওই হাসপাতালে গেলে প্রথমেই জেনে নেওয়া হয় তাঁর জন্ম তারিখ ও সময়। সেই তথ্যের ভিত্তিতে রোগীর কুষ্টি বা কুণ্ডলী তৈরি করেন তিনি। প্রাথমিকভাবে তিনিই বলেন, কী হয়েছে ওই রোগীর। অর্থাৎ, রোগের ডায়াগনোসিস হয় কুষ্ঠিবিচার করে, এরপর সেই মতো শুরু হয় চিকিৎসা। অখিলেশবাবুর কথায়, '' প্রতিদিন প্রায় ২৫-৩০ টি কুন্ডলী তৈরি করি। তবে আমরা শুধুমাত্র ডায়াগনোসিসের জন্যই কুন্ডলী বিচার করি। চিকিৎসার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র মেডিক্যাল সায়েন্সের উপরই ভরসা করা হয়।''

Loading...

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, এখনও পর্যন্ত অখিলেশ শর্মা যেসমস্ত রোগীর কুষ্ঠি বিচার করে রোগের প্রাথমিক ডায়াগনোসিস করেছেন, পরবর্তীতে তাঁদের মেডিক্যাল টেস্টের রিপোর্টেও সেই একই সমস্যা ধরা পড়েছে। হাসপাতালের মতে, “আমরা চিকিৎসা বিজ্ঞানেও জ্যোতিষবিদ্যাকে ব্যবহার করতে চাইছি। কারণ, ভারতীয় সংস্কৃতিতে জ্যোতিষ শাস্ত্রের এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।” হাসপাতালের এক ডাক্তারের বক্তব্য, '' যখন একজন রোগী আসেন, আগে কুষ্ঠি বিচার করা হয়। তারপর মেডিক্যাল টেস্ট। এরপর দুটো রিপোর্ট মিলিয়ে দেখা হয়। তারপর সেইমতো শুরু হয় চিকিৎসা।  উন্নত চিকিৎসা পদ্ধতিতে ট্রিটমেন্ট হয়, শুধুমাত্র ডায়াগনোসিসের জন্যই জ্যোতিষবিদ্যাকে ব্যবহার করা হয়। রোগীরাও এই  চিকিৎসা পদ্ধতিতে খুশি।''

 

 

First published: 09:37:09 AM Jun 24, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर