corona virus btn
corona virus btn
Loading

'আমি গ্র্যাজুয়েট নই,' অবশেষে স্বীকার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির

'আমি গ্র্যাজুয়েট নই,' অবশেষে স্বীকার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি

২০০৪ সালে চাঁদনিচক থেকে যখন ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন স্মৃতি ইরানি, তখন তিনি নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছিলেন, তিনি বিএ পাশ করেছেন৷ ১৯৯৬ সালে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের করেসপন্ডেন্সে বিএ পাস করেছেন৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কেন্দ্রীয়মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি কি কলেজের গণ্ডি পেরিয়েছেন? বছর পাঁচেক আগে এই প্রশ্নে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছিল৷ লোকসভা নির্বাচনের আবহে সেই বিতর্ক অন্য মাত্রা নিল৷ বৃহস্পতিবার বিজেপি নেত্রী তথা কেন্দ্রীয়মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি স্বীকার করলেন, তিনি গ্র‌্যাজুয়েট নন৷ দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে যে আন্ডার-গ্র্যাজুয়েট কোর্সে তিনি ভর্তি হয়েছিলেন, তা শেষ করেননি৷ প্রসঙ্গত, এই স্মৃতি ইরানি মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের দায়িত্ব পান৷ পরে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের দায়িত্বও পান৷

স্মৃতি ইরানির লেখাপড়ার দৌড় নিয়ে বারবারই আক্রমণ করেছেন বিরোধীরা৷ বিরোধীদের দাবি, স্মৃতি ইরানি আদৌ কলেজের গণ্ডি পেরোননি৷ স্মৃতি অবশ্য বিরোধীদের দাবি, বার বারই উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক৷ এ হেন স্মৃতি অবশেষে স্বীকার করলেন, তিনি স্নাতক নন৷

যার নির্যাস, স্মৃতির শিক্ষা নিয়ে নতুন করে বিতর্ক তৈরি হল৷ এমনকী জালিয়াতির অভিযোগেও ফাঁসতে পারেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী৷ কারণ, ২০০৪ সালে চাঁদনিচক থেকে যখন ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন স্মৃতি ইরানি, তখন তিনি নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছিলেন, তিনি বিএ পাশ করেছেন৷ ১৯৯৬ সালে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের করেসপন্ডেন্সে বিএ পাস করেছেন৷ ২০১৪ সালে কমিশনে দেওয়া অ্যাফিডেভিটে তিনি দাবি করেন, তিনি কমার্স গ্র্যাজুয়েট৷ ১৯৯৪ সালে তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কমার্সে স্নাতক হন৷

ইতিমধ্যেই স্মৃতির শিক্ষাগত ডিগ্রি নিয়ে একটি মামলা করা হয়েছে৷ বর্তমানে স্মৃতি ইরানি কেন্দ্রীয় বস্ত্রমন্ত্রকের দায়িত্বে রয়েছেন৷

আরও ভিডিও: জয়নগরের সভায় তৃণমূলকে আক্রমণ স্মৃতি ইরানির

First published: April 11, 2019, 9:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर