বাজেট ২০২১: দেশে বিনিয়োগ টানার উপর গুরুত্ব দিতে হবে আসন্ন বাজেটে, জানাচ্ছেন বেদান্ত-র অনিল আগরওয়াল!

বাজেট ২০২১: দেশে বিনিয়োগ টানার উপর গুরুত্ব দিতে হবে আসন্ন বাজেটে, জানাচ্ছেন বেদান্ত-র অনিল আগরওয়াল!
Photo-File

BPCL নিয়ে আগরওয়ালের বক্তব্য, কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই প্রাইভেটাইজেশন বা বেসরকারিকরণ নিয়ে একাধিক পদক্ষেপ করেছে। ভবিষ্যতেও এ নিয়ে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ১ ফেব্রুয়ারি ২০২১-২২ অর্থবর্ষের কেন্দ্রীয় বাজেট। এই পরিস্থিতিতে দেশে বিনিয়োগ টানার উপর জোর দেওয়ার জন্য সওয়াল করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের কথায়, আসন্ন বাজেটে বিনিয়োগ টানার উপর জোর দিতে হবে। এর জেরে ব্যবসা বাড়ার পাশাপাশি কর্মসংস্থান-সহ একাধিক মুনাফা হবে। কিন্তু কী ভাবে? জেনে নিন কী বলছেন বেদান্ত-র অনিল আগরওয়াল!

CNBC-TV18-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন বেদান্ত-র কর্ণধার অনিল আগরওয়াল (Anil Agarwal)। তাঁর কথায়, আমি ন্যাচারাল রিসোর্স সেক্টরে রয়েছি। আমার বিশ্বাস দেশের জন্য গেম চেঞ্জার হতে পারে এই বিশেষ ক্ষেত্র। কারণ আগামী দিনে এই ক্ষেত্রে প্রচুর কর্মসংস্থানের পাশাপাশি আয়ের পরিমাণও বাড়তে পারে। এক্ষেত্রে ডিউটি-ট্যাক্স তথা শুল্ক বা করে ছাড় দিতে হবে। ২০ শতাংশ থেকে শুল্ক কমিয়ে ১০ শতাংশ করা উচিৎ সরকারের। এর জেরে প্রচুর মানুষ এই ক্ষেত্রের প্রতি আকর্ষিত হবেন। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করতে উৎসাহী হবেন। ঠিক এই বিষয়টির জন্য ২০২১-২২ অর্থবর্ষের বাজেটের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন অনেকে।

কেন্দ্রীয় বাজেটের আগে CAPEX নিয়ে অনেকেরই প্রত্যাশা রয়েছে। ক্যাপেক্সের ক্ষেত্রে বৃদ্ধির হার বাড়ানোর জন্যও সওয়াল করছেন বিশেষজ্ঞরা। ক্যাপেক্স গ্রোথ রেটের প্রসঙ্গও উঠে আসছে। এ নিয়ে আগরওয়ালের সংযোজন, হয় সরকারের ট্যাক্স কমানো উচিৎ নয় তো CAPEX-এর জন্য ইনসেনটিভস দিতে হবে। যদি এটি বাস্তবায়িত হয়, তাহলে দেশের মধ্যে আরও বেশি পরিমাণে বিনিয়োগ বাড়তে পারে।


অনিল আগরওয়াল আরও জানিয়েছেন, অ্যালুমিনিয়াম শিল্প ও অ্যালুমিনিয়ামের বর্জিত অংশের ক্ষেত্রে দেশে একটি বড় বাজার তৈরি হওয়ার এবং বিনিয়োগ টানার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এখানে আমদানির বিষয়টিও অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য। তাই এখানে বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণ করার রূপরেখা তৈরি করতে হবে। নীতি প্রণয়ণকারীদের ইনসেনটিভস ও ট্যাক্সের মধ্যে একটা সমতা বজায় রাখার চেষ্টা করতে হবে। ইনফ্রাস্ট্রাকচার সেক্টরে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অপেক্ষাকৃত কম ট্যাক্স রেট বেনিফিটের উপরে নজর দিতে হবে। কর্পোরেট ট্যাক্স স্কিম, GST, ট্যাক্স লিটিগেশন, এক্সপোর্ট ইনসেনটিভসের ক্ষেত্রেও বিচার-বিবেচনা করতে হবে।

BPCL নিয়ে আগরওয়ালের বক্তব্য, কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই প্রাইভেটাইজেশন বা বেসরকারিকরণ নিয়ে একাধিক পদক্ষেপ করেছে। ভবিষ্যতেও এ নিয়ে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যদি এই পরিকল্পনাগুলির যথাযথ বাস্তবায়ন হয়, তাহলে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবে BPCL। তবে বেসরকারিকরণের ক্ষেত্রে অত্যন্ত সতর্ক হয়ে পদক্ষেপ করতে হবে। সমস্ত তথ্য ও আগাম সম্ভাবনার বিষয়টিকেও যাচাই করতে হবে। আমাদের উপর বেসরকারিকরণের সুদূরপ্রসারী লাভ রয়েছে কি না, সেই বিষয়টি মূল্যায়ণ করতে হবে।

Published by:Debalina Datta
First published: