করোনা ঠেকাতে এবার ব্রহ্মাস্ত্র নিম-তুলসীর ‘আয়ুর্বেদিক মাস্ক’! সাধুবাবার অভিনব ভাবনায় তাজ্জব নেটদুনিয়া!

করোনা ঠেকাতে এবার ব্রহ্মাস্ত্র নিম-তুলসীর ‘আয়ুর্বেদিক মাস্ক’! সাধুবাবার অভিনব ভাবনায় তাজ্জব নেটদুনিয়া!

এক বিশেষ মাস্ক তৈরি করে ফেললেন উত্তরপ্রদেশের এক গেরুয়াধারী বাবাজি। সেই সঙ্গে দাবি করলেন, তাঁর মাস্কে না কি রয়েছে ওষুধ!

  • Share this:

#লখনউ: করোনাভাইরাসের মারণ কামড়ের জেরে আতঙ্কিত গোটা দেশ। এই পরিস্থিতিতে নানা ধরনের ‘আজগুবি’ কাণ্ড-কারখানা করতে দেখা গিয়েছে বহু মানুষকে। এই ধরনের কিছু চরম উদ্ভট এবং হাস্যকর ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে বহুবার আমাদের চোখেও পড়েছে। গো-মূত্র বা গোবর খেয়ে করোনা সংক্রমণ ঠেকানোর চেষ্টাও কম হয়নি। আর এই তালিকায় এবার নতুন সংযোজন হল ‘আয়ুর্বেদিক মাস্ক।’ যা ইতিমধ্যেই নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে নেটিজেনদের মুগ্ধ করেছে।

করোনা সংক্রমণ রুখতে মাস্কের কোনও বিকল্প নেই। বাড়ির বাইরে বেরোলেই প্রয়োজন মাস্ক। এই আবহে এক বিশেষ মাস্ক তৈরি করে ফেললেন উত্তরপ্রদেশের এক গেরুয়াধারী বাবাজি। সেই সঙ্গে দাবি করলেন, তাঁর মাস্কে না কি রয়েছে ওষুধ! বাস ধরার জন্য ওই বাবাজি দাঁড়িয়েছিলেন সীতাপুরের বাসস্ট্যান্ডে। সেখানেই তাঁর মুখে দেখা যায় এক অদ্ভুত মাস্ক। একটি দড়ির খাঁচার মতো দেখতে কাঠামোর মধ্যে ভর্তি রয়েছে নিম ও তুলসীর পাতা। যা ফাঁক ফোকর রয়েছে, তা দিয়েই কোনও ভাবে নিশ্বাস নিচ্ছেন ওই বৃদ্ধ বাবাজি। জানা গিয়েছে ওই বৃদ্ধ সাধুর বয়স ৭২ বছর।

IPS অফিসার রূপিন শর্মা (Rupin Sharma) নিজের Twitter হ্যান্ডেলে বাবাজির এই ভিডিওটি শেয়ার করেন। সেই সঙ্গে তিনি লেখেন, এই মাস্ক কতটা করোনা মোকাবিলা করতে সক্ষম তা আমার জানা নেই। তবে এটা মানতে হবে যে প্রয়োজনই হল বহু আবিষ্কারের জননী। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি। ভিডিও ক্লিপটিতে একটি অনন্য, উদ্ভাবনমূলক (এবং অকার্যকর) মাস্ক পরা গেরুয়াধারী সাধুবাবাকে দেখানো হয়েছে। তাঁর পরা এই মাস্ককে ‘আয়ুর্বেদিক মাস্ক’ বলেও আখ্যা দিয়েছেন বহু নেটিজেন।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওটিতে বাবাজি বলেন, ‘‘আমার বয়স ৭২। নিম আর তুলসী পাতা দিয়ে আমি নিজেই এই মাস্ক বানিয়েছি।’’ তবে ওই বাবাজির ধারণা, সার্জিকাল মাস্ক বা কাপড়ের মাস্কের থেকেও এই মাস্ক অনেক বেশি কার্যকরী। কারণ নিম আর তুলসীর জীবাণুনাশক ক্ষমতা।

ভিডিওটি ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হওয়ার পাশাপাশি ভরে উঠেছে নেটিজেনদের কমেন্টে। অনেকেই এটিকে ‘আয়ুর্বেদিক মাস্ক’,‘প্রাকৃতিক মাস্ক’, ‘মাস্কেই ওষুধ’ ইত্যাদি বলে মন্তব্য করেছেন।

Published by:Pooja Basu
First published: