দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

টিআরপি জালিয়াতি মামলা: প্রাক্তন সিইও-এর গ্রেফতারি নিয়ে বিবৃতি দিল BARC

টিআরপি জালিয়াতি মামলা: প্রাক্তন সিইও-এর গ্রেফতারি নিয়ে বিবৃতি দিল BARC
টিআরপি জালিয়াতি মামলা: পার্থ দাশগুপ্তের গ্রেফতারি নিয়ে বিবৃতি দিল বিএআরসি

টিআরপি জালিয়াতি মামলায় অভিযুক্ত হিসেবে গ্রেফতার হয়েছেন রেটিং সংস্থা ব্রডকাস্ট অডিয়েন্স রিসার্চ কাউন্সিল (বিএআরসি)-এর প্রাক্তন সিইও পার্থ দাশগুপ্ত৷ আগামী ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতেই থাকতে হবে তাঁকে৷ শুক্রবার জানিয়ে দিল আদালত৷

  • Share this:

#মুম্বই: টিআরপি জালিয়াতি মামলায় অভিযুক্ত হিসেবে গ্রেফতার হয়েছেন রেটিং সংস্থা ব্রডকাস্ট অডিয়েন্স রিসার্চ কাউন্সিল (বিএআরসি)-এর প্রাক্তন সিইও পার্থ দাশগুপ্ত৷ আগামী ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতেই থাকতে হবে তাঁকে৷ শুক্রবার জানিয়ে দিল আদালত৷

গতকাল মুম্বই পুলিশের ক্রাইম ইনটেলিজেন্সি ইউনিট (সিআইইউ) পুণে জেলার রায়গড় থানা এলাকা থেকে পার্থকে সন্ধ্যায় গ্রেফতার করে৷ শুক্রবার তাঁকে আদালতে পেশ করা হয়েছিল৷ বিএআরসি-র টিআরপি জালিয়াতি মামলায় 'মাস্টারমাইন্ড' পার্থ-র ঠিক কী ভূমিকা ছিল, সেটা জানতেই মুম্বই পুলিশ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায়৷ এই মর্মেই আদালতের কাছে আর্জি জানিয়ে পার্থকে নিজেদের হেফাজতে রাখতে চায় পুলিশ৷ আদালত তা মঞ্জুর করে৷

পার্থ-র ও কোম্পানির অনান্যদের গ্রেফতারি নিয়ে এবার বিবৃতি দিল বিএআরসি৷ তাদের মুখপাত্র জানিয়েছেন, "বিএআরসি ইন্ডিয়ার প্রাক্তন কর্মীদের বিষয়টা তদন্তাধীন৷ যা চলছে এখনও৷ বিএআরসি ম্যানেজমেন্ট এই বিষয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে পূর্ণ সমর্থন ও সহযোগিতা চালিয়ে যাবে৷ এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে কোনও মন্তব্য করা বিএআরসি-র পক্ষে সমিচীন নয়৷ বিএআরসি ইন্ডিয়ার প্রতিটি কর্মচারীকে নির্দিষ্ট আচরণ বিধি ও নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয়৷ তা লঙ্ঘন করলে উপযুক্ত অনুশাসনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়৷ আমরা এটা ভবিষ্যতেও নিশ্চিত করব যে, দেশ যা দেখে (টিভিতে) ঠিক তার ভিত্তিতেই আমাদের রিপোর্ট সত্যতা এবং অখণ্ডতা বজায় রেখেই হয়৷ যা বিএআরসি-র সকল অংশিদারের দায়বদ্ধতার মধ্যে পড়ে৷"

টিআরপি জালিয়াতি কাণ্ডে এখনও পর্যন্ত মোট ১৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ কিছুদিন আগেই বার্কের প্রাক্তন চিফ অপারেটিং রামিল রামগড়িয়া-সহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে মুম্বই পুলিশের সিআইইউ৷

টিআরপি কেলেঙ্কারির তদন্তে নেমে রিপাবলিক-সহ মোট তিনটি টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে রেটিং-কারচুপির অভিযোগ আনে মুম্বই পুলিশ। এর পরই শুরু হয় তদন্ত। এই জালিয়াতি কাণ্ডে রিপাবলিক টিভি-র প্রধান সম্পাদক অর্ণব গোস্বামীরও নাম উঠে এসেছিল।

রিপাবলিক নেটওয়ার্কের বিরুদ্ধেও তোগ দেগেছিল বিএআরসি৷ অকারণে গোপন তথ্য সামনে আনা এবং তার অপব্যখ্যা করার জন্য এই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বার্কের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়।

Published by: Subhapam Saha
First published: December 25, 2020, 8:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर