• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পদত্যাগ করুন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব ! ত্রিপুরায় গর্জে উঠল ৬ আদিবাসী রাজনৈতিক দল

পদত্যাগ করুন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব ! ত্রিপুরায় গর্জে উঠল ৬ আদিবাসী রাজনৈতিক দল

  • Share this:

    #আগরতলা: মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের পদত্যাগ চেয়ে গর্জে উঠল ত্রিপুরার ৬ আদিবাসী রাজনৈতিক দল ৷ ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে এই ছ’টি দল আগামী ১২ জানুয়ারি ১২ ঘণ্টার বনধের ডাকও দিল ৷ ইতিমধ্যেই মাধববাড়ি-র ঘটনায় বৃহস্পতিবার ১২ ঘণ্টার বনধে সামিল হয়েছিল INPT, NCT, IPFT-TIPRAHA, TSP, DYP-এর মতো দলগুলি ৷ বৃহস্পতিবার ত্রিপুরা আদিবাসী দলগুলি বৈঠকে বসে ৷ বৈঠকের পর সাংবাদিকদের দলগুলির পক্ষ থেকে জানানো হয় আগামী শনিবারের বনধের কথা ৷

    INPT-এর সাধারণ সম্পাদক জগদীশ দেববর্মা সাংবাদিকদের জানান, ‘এখনই মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব পদত্যাগ করুন ৷’ শুধু তাই নয়, জগদীশ দেববর্মা আরও জানান, ‘মাধবাড়ির ঘটনায় তদন্ত চাই ৷ প্রত্যেক আহতদের ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ৷’

    গতকাল বিরোধিতা সত্ত্বেও লোকসভায় পাস হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৬। এই বিল পাস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কেন্দ্রীয় সরকারের বিরোধিতায় সরব হয় উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক রাজনৈতিক দল। এই বিলের বিরুদ্ধে ত্রিপুরায় বিক্ষোভ দেখায় নর্থ ইস্ট স্টুডেন্ট'স অর্গানাইজ়েশন ও অল অসম স্টুডেন্স'স ইউনিয়ন।

    মাধববাড়ি এলাকায় বিক্ষোভকারীদের মধ্যে কয়েকজন আচমকাই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে ৷ বেশ কিছু দোকানে আগুন লাগিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা ৷ বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ ৷ কিন্তু পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে বেরিয়ে যাওয়ার জেরে লাঠিচার্জ করে পুলিশ ৷ বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে পুলিশ ৷

    পুলিশের গুলির আঘাতে গুরুতর আহত হন চার বিক্ষোভকারী ৷ আগরতলার গোবিন্দ বল্লভ পান্ত(GBP) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন আহতরা ৷ আহতদের মধ্যে রয়েছেন পোহার দেববর্মা, শঙ্কর দেববর্মা, রবি দেববর্মা, সুমিত দেববর্মা, ললিত মোহন দেববর্মা এবং দীনেশ কুমার ৷

    পুলিশ সূত্রে খবর, জাতীয় সড়ক অবরোধ করে প্রতিবাদ করছিলেন বিক্ষোভকারীরা ৷ টায়ার পুড়িয়ে প্রতিবাদ জানান বিক্ষোভকারীরা ৷ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা ৷

    গতকাল বিরোধিতা সত্ত্বেও লোকসভায় পাস হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৬। এই বিল পাস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কেন্দ্রীয় সরকারের বিরোধিতায় সরব হয় উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক রাজনৈতিক দল। এই বিলের বিরুদ্ধে ত্রিপুরায় বিক্ষোভ দেখায় নর্থ ইস্ট স্টুডেন্ট'স অর্গানাইজ়েশন ও অল অসম স্টুডেন্স'স ইউনিয়ন।

    First published: